শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ মে, ২০২১ ১৯:৫৯
প্রিন্ট করুন printer

বিয়ের ১০ দিনের মাথায় গৃহবধূর আত্মহত্যা

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

বিয়ের ১০ দিনের মাথায় গৃহবধূর আত্মহত্যা
প্রতীকী ছবি
Google News

চুয়াডাঙ্গায় স্বামীর পরিবারের নির্যাতন ও কটুকথা সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন নববধূ অন্তরা খাতুন। বিয়ের মাত্র ১০ দিনের মাথায় সোমবার দুপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। নিহত অন্তরা খাতুন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার নুরনগর কলোনীপাড়ার কলিম উদ্দিনের মেয়ে। গত ১০ দিন আগে একই গ্রামের আশাদুল হক আশার ছেলে শাহ আলমের সঙ্গে অন্তরার বিয়ে হয়।

এলাকাবাসী জানায়, প্রতিবেশী যুবক শাহ আলমের সঙ্গে অন্তরা খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ২২ মে অন্তরাকে ডেকে নিয়ে নিজ বাড়িতে অন্তরঙ্গ পরিবেশে অবস্থান করছিল শাহ আলম। এ সময় এলাকার লোকজন তাদের আটক করে এবং ৯০ হাজার টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে দেয়। শাহ আলমের পরিবার বিষয়টি মেনে না নিয়ে অন্তরাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। সোমবার সকালে অন্তরা পিতার বাড়িতে যায়। পরে সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অন্তরা মারা যায়। 

অন্তরার পিতা কলিম উদ্দিন জানান, আমি দোষীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ জানান, বিয়ের কয়েক দিনের মাথায় একটা মেয়ের আত্মহত্যা রহস্যজনক মনে হচ্ছে। সে কারণে লাশের ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে। পরবর্তীতে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/ আল আমীন

এই বিভাগের আরও খবর