শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ জুন, ২০২১ ১৩:৫৭
আপডেট : ১২ জুন, ২০২১ ১৪:৫০
প্রিন্ট করুন printer

লক্ষ্মীপুরে বেহাল সড়কে জনজীবন বিপর্যস্ত

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :

লক্ষ্মীপুরে বেহাল সড়কে জনজীবন বিপর্যস্ত
Google News

লক্ষ্মীপুরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)-এর সড়কগুলো চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় জেলার ৫টি উপজেলায় ১১০৪টি পাকা ও আংশিক পাকা সড়কে এখন নাভীশ্বাসে জেলার প্রায় ১৮ লাখ মানুষ। প্রতিনিয়ত নানা দুর্ঘটনার সাক্ষী এ সড়কগুলো। 

এদিকে, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী বলছেন, গ্রামীণ এসব সড়ক সংস্কারের যে চাহিদার চেয়ে বরাদ্দ কম থাকায় দূর্ভোগের স্বীকার হচ্ছেন মানুষ।' 

স্থানীয় এলাকাবাসী ও এলজিইডি সূত্রে জানা যায়, জনগুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার টুমচর মাদ্রাসা (আরএসডি টু আরএসডি) সড়কটি ২০০৯ সালে কোটি টাকা ব্যয়ে পাকাকরণ করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। 

প্রায় ৫ কিলোমিটারের এ সড়কটি স্থানীয় মজু চৌধুরীর হাট ফেরি ঘাট-জেলা শহরের বাস টার্মিনাল ও রামগতির সঙ্গে সংযোগ সড়ক হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। সড়ক নির্মাণের পর থেকে আর কোন সংস্কার কাজ হয়নি। প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনাও ঘটছে বলে জানান যাত্রীসহ সাধারণ বাসিন্দারা। 

এছাড়াও একই এলাকার পশ্চিম টুমচর টু পানা মিয়া হাজী বাড়ী সড়ক, টুমচর ইউনিয়ন পরিষদ টু আইয়ুব আলী ব্রীজ সড়ক, টুমচর বাজার টু কালিরচর বাজার সড়কসহ জেলার ৫টি উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে এলজিইডির অধিকাংশ সড়কের এমন বেহাল অবস্থা। 

এলজিইডির তথ্য মতে, জেলার ৫টি উপজেলায় মোট ১ হাজার ২শ’ ৪৮টি পাকা ও আংশিক পাকা সড়ক রয়েছে এলজিইডি’র। চলতি বছর সংস্কার করা হয়েছে ১৪৪টি সড়কের। বাকি সড়কগুলো একেবারেই নাজুক অবস্থায় রয়েছে। জেলার প্রায় ১৮ লাখ মানুষের আশা এসব সড়ক সংস্কারের দ্রুত পদক্ষেপ নিবে প্রশাসন।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শাহআলম পাটোয়ারী জানান, 'বরাদ্দ স্বল্পতার কারণ ও দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী প্রতিবছর বরাদ্দ আসছে অনেক কম। তবে জনগুরুত্বপূর্ণ বিবেবেচনার ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমে রাস্তাগুলো সংস্কারে কাজ চলমান রয়েছে।'  

 

বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির 

এই বিভাগের আরও খবর