শিরোনাম
প্রকাশ : ১ জুলাই, ২০২১ ২১:৫৬
প্রিন্ট করুন printer

সুন্দরবনে দুই মাস সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ

বাগেরহাট প্রতিনিধি

সুন্দরবনে দুই মাস সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ
Google News

সুন্দরবনের নদ-নদী ও খালে আগামী দুই মাসে সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ করেছে বন বিভাগ। মাছের প্রজনন মৌসুমে কারণে ১ জুলাই ভোর থেকে ৩১ আগস্ট মধ্যে রাত পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে। 

সুন্দরবন বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রাতে জানান, সুন্দরবন হচ্ছে মিঠা ও লবণ পানি প্রজাতির মাছের বিশাল ভাণ্ডার। সুন্দরবনের এই মাছের ভাণ্ডার রক্ষায় ৩ টি ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইডের নদ-নদী ও খালে সারা বছরের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ থাকে। গত দুই বছর ধরে বন বিভাগ ওয়ার্ড হ্যারিটেজ সাইডের বাহিরে থাকা আবশিষ্ট বনভূমির বিশাল জলভাগের সব নদ-নদী খালে ১ জুলাই ভোর থেকে ৩১ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ করা করেছে। মূলত জুলাই-আগস্ট মাস হচ্ছে সুন্দরবনের মিঠা ও লবণ পানি প্রজাতির মাছের প্রজনন মৌসুম। সুন্দরবনে ৩০০ প্রজাতি মাছ রয়েছে। সুন্দরবনের বিশাল এই মাছের ভান্ডার সমৃদ্ধ করাসহ মাছের প্রজনন নির্বিঘ্ন করতে বন বিভাগ এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সে কারণে সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশে ১ জুলাই ভোর থেকে ৩১ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত সব ধরনের আহরণ বন্ধ করা হয়েছে। বন বিভাগের এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে ইতিমধ্যেই মাছ আহরণের সব অনুমতিপত্র (পাশ-পারমিট) বন্ধ করা হয়েছে। কেউ যাতে চোরাপথে সুন্দরবনে ঢুকে মাছসহ জীববৈচিত্র্য কোন ক্ষতি করতে না পারে সেজন্য স্মার্ট প্রেট্রোলিংসহ সব ধরনের নজরদারি জোরদার করা হয়েছে বলেও জানান এই শীর্ষ বন কর্মকর্তা। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর