৮ নভেম্বর, ২০২১ ১৮:৫৩

টিকটক ভিডিওতে মেয়ের ছবি দেখা যাওয়ায় তরুণকে নির্যাতন, অপমানে আত্মহত্যা

ফেনী প্রতিনিধি

টিকটক ভিডিওতে মেয়ের ছবি দেখা যাওয়ায় তরুণকে নির্যাতন, অপমানে আত্মহত্যা

প্রতীকী ছবি

ফেনীর সোনাগাজীতে টিকটক ভিডিওতে একটি মেয়ের ছবি দেখা যাওয়াকে কেন্দ্র করে নির্যাতনে অপমান বোধ করায় আত্মহত্যা করেছে ইমরান হোসেন (১৮) নামে এক তরুণ। আত্মহত্যার আগে তিনি চিরকুটে লিখে গেছেন নির্যাতনকারীদের নাম।

রবিবার রাতে সোনাগাজী উপজেলার পশ্চিম চর দরবেশ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মৃত ইমরান স্থানীয় মাঈন উদ্দিনের ছেলে। তিনি পেশায় একজন নির্মাণ শ্রমিক ছিলেন।

মৃতের পরিবারের সদস্যরা জানান, ইমরান নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে রবিবার রাতে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি আত্মহত্যার কারণ ও আটজন নির্যাতনকারীর নাম একটি চিরকুটে লিখে গেছেন।

তারা আরও জানান, কয়েকদিন আগে ইমরান চর দরবেশের মুছাপুর গিয়ে একটি টিকটক ভিডিও বানান। ভিডিও করার সময় ভুলবশত স্থানীয় একটি মেয়ের ছবি উঠে যায়। সেই ছবি ওঠাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আটজন যুবকসহ মেয়েটির ভাই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এতে ইমরান ভুল স্বীকার করে তাদের কাছে ক্ষমা চান। এরপরও তারা তাকে মারধর করে। রবিবার সন্ধ্যায়ও স্থানীয় মসজিদে নামাজ আদায় করতে গেলে ওই যুবকরা তাকে গলমন্দ করে ও হুমকি-ধমকি দেয়। এতে তিনি অপমান বোধ থেকে আত্মহত্যা করেন।

ইমরানের বাবা জানান, তার ছেলে যাদের নাম লিখে গেছে তাদের তিনি চেনেন। তিনি মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন। অতি শিগগিরই থানায় মামলা করবেন।

সোনাগাজীর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজেদুল ইসলাম জানান, পুলিশ রাতেই লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। ইমরানের সুইসাইড নোটটি পুলিশ গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখছে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর