১৯ জুন, ২০২২ ১৯:৩৩

চর্যাপদ গবেষণায় সম্মাননা

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

চর্যাপদ গবেষণায় সম্মাননা

বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন চর্যাপদ নিয়ে গবেষণায় অবদান রাখায় প্রফেসর আলীম মাহমুদকে বিশেষ সম্মাননা পদক দিয়েছেন টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন। রবিবার বিকেলে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে এ সম্মাননা স্মারক তুলে দেন টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন ড. মো. আতাউল গনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র আলমগীর হোসেন মেনু, সখীপুর পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হানিফ আজাদ।

প্রফেসর আলীম মাহমুদ এর বাড়ি টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কচুয়া গ্রামে। তিনি সরকারি সা'দত কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ, বাংলা বিভাগীয় চেয়ারম্যান ও শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
তিনি বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন চর্যাপদের সবগুলো পদ সুরারোপ করেছেন, মিউজিক করেছেন, কন্ঠ দিয়েছেন ও স্বরলিপি করেছেন।
চর্যাপদের উপরে গবেষণায় ২০২২ সালে প্রফেসর আলীম মাহমুদের 'কাআ তরুবর' নামে একটি গ্রন্থ প্রকাশ পেয়েছে।

তিনি বাংলাদেশ রেডিও ও টেলিভিশনের গীতিকার, সুরকার, আবৃত্তিশিল্পী, কন্ঠ শিল্পী ও নাট্য শিল্পী।
এ ছাড়া কবিতা, গল্প, ছড়া, প্রবন্ধ, উপন্যাস লিখেন। 'সুন্দর মেখেছে ছাইভস্ম ' কাব্য গ্রন্থ ও 'গহন মায়ার ছলান' উপন্যাস, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে ' শত গীতের অর্ঘ্য' শিরোনামে একটি গানের গ্রন্থ পাঠক প্রিয়তার শীর্ষে।

তিনি কলেজ থেকে অবসরে এসে 'চাঁদের হাট' নামের প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করেছেন। যেখানে, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ,  মক্তব, দাতব্য চিকিৎসালয় ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড নিয়ে গবেষণা কেন্দ্র রয়েছে। বর্তমানে তিনি টাঙ্গাইলের সখীপুরে সেই 'চাঁদের হাট' এ সময় কাটান।

এ নিয়ে প্রফসর আলীম মাহমুদ বলেন, বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন চর্যাপদ নিয়ে প্রায় ৩০ বছর ধরে গবেষণা করে আসছি। এটা অনেক বড় কাজ, এই চর্যাপদ নিয়ে দেশ বিদেশে আমি আরও কাজ করতে চাই। টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন আমাকে বিশেষ সম্মাননা দেয়ায় আমি আনন্দিত। এই পদক আমাকে চর্যাপদ নিয়ে কাজ করার আরও দায়িত্ব বাড়িয়ে দিয়েছেন বলে মনে করি।

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর