২৮ জুলাই, ২০২২ ১৪:৪৩

গৌরনদীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

গৌরনদীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার কটকস্থল গ্রামে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতিতাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গত বুধবার (২৭ জুলাই) গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান, ওই উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের মাগুড়া পূনিয়াকান্দি গ্রামের মুজাম চকিদারের মেয়ে মনিকা আক্তারের (২০) সঙ্গে তিন বছর পূর্বে একই উপজেলার কটকস্থল গ্রামের সিদ্দিক মোল্লার ছেলে জুয়েল মোল্লার (২৬) বিয়ে হয়। স্বামী জুয়েল মোল্লা বিদেশে যাওয়ার জন্য ৫ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীর উপর চাপ সৃষ্টি করে। স্ত্রী যৌতুক এনে দিকে অস্বীকার করায় তার উপর শারীরিক নির্যাতন শুরু হয়। 

নির্যাতিতার মা ববিতা বেগম অভিযোগ করেন, বিয়ের পর থেকে জামাতা জুয়েল মোল্লা বিদেশে যাওয়ার কথা বলে ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। টাকা না দেওয়ায় জামাতা জুয়েল মোল্লা ও শাশুড়ি সুফিয়া বেগমসহ বাড়ির লোকজন মেয়ে মনিকাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে। এ নিয়ে একাধিকবার গ্রাম্য সালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

সবশেষ গত মঙ্গলবার যৌতুকের দাবিকৃত ৫ লাখ টাকা আনার জন্য মনিকাকে বাড়ি যেতে বলে। মনিকা টাকা আনতে বাড়ি যেতে অস্বীকার করলে ওইদিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তার স্বামী জুয়েল মোল্লা ও শাশুড়ি সুফিয়া বেগম ওড়না দিয়ে মুখ বেধে ঘরে আটকে লাঠিপেটা করে। খবর পেয়ে ওই বাড়ি গিয়ে গ্রামবাসির সহায়তায় মেয়েকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন ববিতা বেগম। 

গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরুী বিভাগের চিকিৎসক ডা. দেওয়ান আব্দুস সালাম বলেন, মনিকাকে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাত্ব জখম করা হয়েছে। 

চিকিৎসাধীন মনিকা অভিযোগ করে বলেন, তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে স্বামী ও শাশুড়ি ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। এর আগে লাঠি দিয়ে বেধরক পিটিয়ে জখম করে। টেনে মাথার চুল ছিড়ে ফেলে। প্রতিবেশীরা মাকে খবর দিলে মা এসে উদ্ধার করে হাসাপাতালে ভর্তি করেন।  

এ বিষয়ে জানতে একাধিকবার ফোন করলেও জুয়েল মোল্লার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তার মা সুফিয়া বেগম নির্যাতনের কথা অস্বীকার করে বলেন, যৌতুক দাবি অভিযোগ সঠিক নয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই আছে। তাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। 

গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আফজাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় নির্যাতিতা মনিকার মা ববিতা বেগম বাদী হয়ে জামাতা জুয়েল মোল্লা ও তার মা সুফিয়া বেগমের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে আসামি করে বুধবার রাতে গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। 


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর