শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৯ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ জুন, ২০২১ ২৩:১৭

বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের নির্মাতা

বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের নির্মাতা
Google News

বলিউডের গোড়াপত্তন থেকে যেসব নির্মাতা ছবি পরিচালনা করে আসছেন তাঁদের মধ্যে খুব কমসংখ্যক নির্মাতাই তারকা হয়ে উঠেছেন। আর এই তারকাদের পারিশ্রমিক অনেক সময় একজন সেরা অভিনয়শিল্পীর চেয়েও বেশি থাকত। এমনই কয়েকজন নির্মাতার কথা তুলে ধরেছেন আলাউদ্দীন মাজিদ

 

মেহবুব খান

পরিচালক মেহবুব খান, ১৯৩৫ সালে তাঁর পরিচালনার যাত্রা শুরু করেছিলেন এবং আনমল গাদি (১৯৪৬), আন্দাজ (১৯৪৯), আন (১৯৫২), অমর (১৯৫৪), মাদার ইন্ডিয়া (১৯৫৬) তৈরি করেন তিনি। তখন তাঁর পারিশ্রমিক ছিল ২৫ লাখ রুপি।

 

কে আসিফ

কে আসিফ ১৯৬০ সালের হিন্দি মহাকাব্যিক মুঘল-ই-আজম চলচ্চিত্রের সঙ্গে সম্পৃক্ততার জন্য বিখ্যাত ছিলেন। তখনকার দিনেই তাঁর পারিশ্রমিক ছিল ৫০ লাখ রুপি। আরও বেশ কটি ছবি নির্মাণ করেছিলেন তিনি।

 

যশ চোপড়া

যশ চোপড়া। পাঁচ দশক ধরে কভি কভি, সিলসিলা, চাঁদনি, লামহে, ডর, দিল তো পাগল হ্যায়, দিলওয়ালে দুলহানিয়া লেযায়েঙ্গে, মহব্বতে, বীর-জারা, বান্টি অউর বাবলির মতো ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। ছবিপ্রতি তাঁর পারিশ্রমিক ছিল ৮ কোটি রুপি।

 

রমেশ সিপ্পি

১৯৭৫ সাল। রমেশ সিপ্পি পরিচালনা করেছিলেন ‘শোলে’ ছবিটি। ফিল্মটি সবচেয়ে বড় ব্লকবাস্টার হয়ে ওঠে বলিউড ফিল্ম ইতিহাসে। তিনি তখনই প্রায় ৮ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিতেন।

 

সুভাষ ঘাই

সুভাষ ঘাই। ২০১৫ সালে তিনি ভারতীয় চলচ্চিত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ভারতীয় চলচ্চিত্র একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন। এই খ্যাতিমান নির্মাতা ছবিপ্রতি ৮ কোটি রুপি নিতেন।

 

সঞ্জয় লীলা বানশালী

সঞ্জয়ের চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় ১৯৯৬ সালে খামোশি চলচ্চিত্র দিয়ে।  বলিউডের এই খ্যাতিমান নির্মাতা এখনো নির্মাণে ব্যস্ত এবং ছবিপ্রতি তাঁর পারিশ্রমিক ১৫ কোটি রুপি।

 

ফারহান আখতার

ফিল্ম ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে উঠে আসা ফারহান একজন বলিষ্ঠ অভিনেতা এবং গায়কও। সহপরিচালক হিসেবে পরিচালনায় হাত পাকানো ফারহান একটি চলচ্চিত্র পরিচালনার জন্য ৮ কোটি রুপি নেন।

 

কবীর খান

চলচ্চিত্র পরিচালক হওয়ার আগে তিনি মূলত তথ্যচিত্র বানাতেন। ‘নিউইয়র্ক’ সিনেমায়ই তাঁর বলিউডে হাতেখড়ি। তাঁর নির্মিত ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ একটি ব্লকবাস্টার হিট ছবি। একটি চলচ্চিত্র পরিচালনা করতে পারিশ্রমিক নেন ৮ কোটি রুপি।

 

অনুরাগ কাশ্যপ

অনেকের মতে ভারতে বাণিজ্যিক সিনেমার ভোল বদলেছেন এই পরিচালক। যতটা সম্ভব কম বাজেটে সিনেমা বানানোর চেষ্টা করেন তিনি। একটি সিনেমার জন্য পারিশ্রমিক নেন ৮ কোটি রুপি।

 

মণি রত্নম

বলিউডের পাশাপাশি দক্ষিণী চলচ্চিত্রেও বিপুল জনপ্রিয় তিনি। তাঁর পরিচালনায় নির্ভুল চলচ্চিত্র বেরিয়ে আসে এমনটা মনে করেন অনেকেই। ২০০২ সালে তিনি পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হয়েছিলেন। একটি সিনেমার জন্য এই পরিচালকের পারিশ্রমিক ৯ কোটি রুপি।

 

করণ জোহর

রোমান্টিক সিনেমার রাজা বলা হয় করণকে। প্রেম এবং তা ঘিরে সামাজিক জটিলতাই মূলত ফুটিয়ে তোলেন নিজের সিনেমায়। তিনি পরিচালকের পাশাপাশি জনপ্রিয় সঞ্চালকও। তাঁর শো ‘কফি উইথ করণ’ অত্যন্ত জনপ্রিয়। তাঁর পারিশ্রমিক ১০ কোটি রুপি।

 

রাজকুমার হিরানি

নিজের চলচ্চিত্র নিয়ে এরকমই আত্মবিশ্বাসী রাজকুমার। একটি সিনেমার জন্য পারিশ্রমিক নেন ১০ কোটি রুপি।

 

এ আর মুরুগাডস

এ আর মুরুগাডসের ছবি ‘আকিরা’তে অনুরাগ কাশ্যপ ভিলেন হতেও রাজি হয়ে যান। তাঁর এক কথায়ই ‘গজনি’তে অভিনয় করতে রাজি হয়েছিলেন আমির খান। একটি ছবি বানাতে তাঁর পারিশ্রমিক ১২ কোটি রুপি।

 

রোহিত শেঠি

বলিউডের অ্যাকশন পরিচালক। পরিচালক রোহিত শেঠি একটি সিনেমা পরিচালনার জন্য ২৫ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন।

 

এস এস রাজামৌলি

ভারতীয় সিনেমার মাইলস্টোন চলচ্চিত্র ‘বাহুবলী’। পরিচালক রাজামৌলি এ সিনেমার অতুলনীয় সাফল্যের পর ‘বাহুবলী-২’ তৈরির জন্য তিনি ১০০ কোটি রুপি  পারিশ্রমিক নেন।