১৪ জুলাই, ২০২২ ০৯:৫৯

ঈদের ছবির ভালো-মন্দ

আলাউদ্দীন মাজিদ

ঈদের ছবির ভালো-মন্দ

‘আমার মধুমিতা হলে চলছে ‘দিন : দ্য ডে’ ছবিটি। বিদেশি লোকেশন, বিগ বাজেটসহ নানা কারণে ছবিটির প্রতি প্রথম থেকেই দর্শক আগ্রহ ছিল। তাই ছবিটি মুক্তির পর মঙ্গলবার পর্যন্ত আমার হলে ছবির সেল রিপোর্ট সন্তোষজনক। প্রতিদিন গড়ে ৭০ শতাংশ টিকিট বিক্রি হচ্ছে। আমার চলচ্চিত্র প্রযোজনা ও প্রদর্শনের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি এই সেল কমপক্ষে ৯০ শতাংশ হতো যদি ছবির গানে দেশি আমেজ থাকত। ছবির গানগুলোতে ইরানি গানের আবহ থাকায় সাধারণ দর্শক তা বুঝতে পারছে না বলেই কিছুটা আগ্রহ কম দেখাচ্ছে বলে তারা জানাচ্ছে। অন্যদিকে বাংলাদেশের মানুষ ছবিতে রোমান্টিকতা দেখতে চায়। এই ছবিতে তা নেই বলেও বিশেষ করে ইয়ং জেনারেশন ছবিটির প্রতি পূর্ণ মনোযোগ দিতে পারছে না। তাছাড়া অন্য সবদিক থেকে ছবিটি হলিউড-বলিউডের ছবির চেয়ে কোনো অংশে কম বলা যাবে না।’- বললেন মধুমিতা সিনেমা হলের কর্ণধার ইফতেখার নওশাদ।

এ বিষয়ে ছবির প্রযোজক ও অভিনেতা অনন্ত জলিলের বক্তব্য হলো- ‘এটি একটি দেশের পুলিশ বাহিনীর সফলভাবে দায়িত্ব পালন ও মাদকদ্রব্য রোধের মিশন নিয়ে অ্যাকশন ঘরানার গল্পের ছবি। তাই এতে তেমন করে রোমান্টিকতা আসার সুযোগ নেই। তাছাড়া ছবিটি ইরানের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে। ইরানের ছবিতে নায়ক-নায়িকা হাতও ধরতে পারবে না। তাই সেখানে রোমান্টিক গল্প বা দৃশ্যের প্রশ্নই আসে না। একই সঙ্গে বলতে হয় ছবির গল্প যেহেতু ইরানের কিছু ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়েছে, তাই গানগুলো ইরানের গানের আদলেই করতে হয়েছে। সবশেষে বলব এটি একটি দেশাত্মবোধক গল্পের অ্যাকশনধর্মী ছবি। তাই ছবিতে আন্তর্জাতিক মানের নির্মাণ ও গল্প পেয়ে দর্শক বিপুল আগ্রহ নিয়ে ছবিটি দেখছে। যার প্রমাণ ‘সনি’, ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’সহ বেশিরভাগ সিনেপ্লেক্স ও সিনেমা হলে ছবিটির দুই-তিন দিনের টিকিট অগ্রিম বিক্রি হয়ে যাচ্ছে।’

মিরপুরের সনি সিনেপ্লেক্সের অন্যতম কর্ণধার মোহাম্মদ হোসেন জানান, তার সিনেপ্লেক্সে ‘দিন : দ্য ডে’ ও ‘পরাণ’ দুটি ছবিই বিপুল দর্শকগ্রহণযোগ্যতা নিয়ে চলছে। দুটি ছবিরই টিকিট অগ্রিম বিক্রি হয়ে যাচ্ছে। তার কথায় মুক্তির দিন ‘পরাণ’ ছবির সেল একটু কম থাকলেও এখন এর দর্শক চাহিদা তুঙ্গে। তিনি বলেন, আসলে আমাদের দেশের মানুষ গল্পনির্ভর ছবি দেখতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে সব সময়। এ ছবিটিতে মনের মতো একটি ত্রিভুজ প্রেমের গল্প পেয়েছে বলেই হয়তো নতুন প্রজন্মসহ সব শ্রেণির দর্শকের মন কাড়ছে। অন্যদিকে সমৃদ্ধ একটি আন্তর্জাতিক মানের অ্যাকশন গল্পের ছবি হিসেবে ‘দিন : দ্য ডে’ ছবির প্রতিও দর্শক আগ্রহ প্রচুর।

‘পরাণ’ ছবির নির্মাতা রায়হান রাফি বলেন, দর্শক এখনো ভালো গল্পের ছবি দেখে, ‘পরাণ’ ছবির সফলতা আবারও তা প্রমাণ করল। সিনেমা হলগুলোতে কয়েক দিনের টিকিট নেই, সিনেপ্লেক্সগুলো দর্শকের চাপে স্ক্রিন বাড়াতে বাধ্য হচ্ছে। আসলে আমরা তো দর্শকদের ঘর থেকে টেনে এনে ছবি দেখাচ্ছি না। তারা জেনেশুনেই উৎসাহী হয়ে আসছে। একটি মানসম্মত ছবি নির্মাণে কোনো কার্পণ্য করিনি বলেই আজ ‘পরাণ’ ছবি দর্শকের মন কেড়েছে। শুক্রবার থেকে পরাণের সিনেমা হলের সংখ্যা আরও বাড়তে যাচ্ছে।

স্টার সিনেপ্লেক্সের সিনিয়র বিপণন কর্মকর্তা মেসবাহউদ্দিন বলেন, আমার এখানে ‘পরাণ’ ছবিটির প্রতি দর্শক আগ্রহ সবচেয়ে বেশি। টিকিটের জন্য দর্শকের চাপ সামলাতে না পেরে শো এবং স্ক্রিন বাড়াতে হচ্ছে। অন্যদিকে ‘দিন : দ্য ডে’ ছবিটিও আগ্রহ নিয়ে দর্শক দেখছে। এই ছবিটিও হাউস ফুল চলছে। বলতে পারি দুটি ছবিই দর্শকগ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে।

‘সাইকো’ ছবির নির্মাতা অনন্য মামুন বলেন, ‘ঢাকার বাইরে মুক্তি পাওয়া ১৭টি সিনেমা হলে তার ছবিটি এক নম্বর অবস্থানে রয়েছে। আগামী সপ্তাহে এই হলের সংখ্যা ৫০টির মতো বাড়বে। খুলনার শঙ্খ, শিউলীসহ বেশ কটি সিনেমা হলে ‘সাইকো’ ছবিটি চলছে। এসব সিনেমা হলের কর্ণধার কামাল জানান, তাদের সিনেমা হলগুলোতে প্রত্যাশিত দর্শক সাড়া মিলছে। কোরবানির ঈদ হওয়ায় প্রথম দিন দর্শক কম থাকলেও ধীরে ধীরে তা বাড়ছে বলে ছবিটি নিয়ে সন্তুষ্ট তিনি।

যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাসের অপারশন ইনচার্জ অফিসার এ এইচ রাজু জানান, তার সিনেপ্লেক্সে পাঁচটি স্ক্রিনে ‘দিন : দ্য ডে’ এবং তিনটিতে ‘পরাণ’ প্রদর্শিত হচ্ছে এবং দর্শকপ্রিয়তার দিক থেকে এক নম্বর অবস্থানে রয়েছে ‘দিন : দ্য ডে’ ছবিটি। এই ছবিটি বিগ বাজেট ও অনন্ত-বর্ষার ছবির প্রতি দর্শকদের আলাদা আগ্রহ আছে বলেই ছবিটি সফলতা পাচ্ছে। তিনি জানান, তার সিনেপ্লেক্সে আজ থেকে ‘সাইকো’ ছবিটিও চলবে।

এদিকে, চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি কাজী শোয়েব রশীদ ও সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন উজ্জ্বল একই মত প্রকাশ করে বলেন, আসলে যে ছবি ভালো হবে দর্শক তা দেখবেই। এখন তো ঈদে মুক্তি পাওয়া ছবির মেয়াদ মাত্র তিন দিন হলো, তাই এই মুহূর্তে কোনো ছবির সাফল্য বা ব্যর্থতা নিয়ে চূড়ান্তভাবে কিছু বলা যাবে না। এর জন্য কমপক্ষে এক সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে। তবে এখন পর্যন্ত ‘দিন : দ্য ডে’ ও ‘পরাণ’ ছবির মধ্যে তীব্র প্রতিযোগিতা চলছে বলে দেখতে পাচ্ছি।

উল্লেখ্য, ঈদুল আজহায় তিনটি ছবি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে। এর মধ্যে অনন্ত জলিলের ‘দিন : দ্য ডে’, ১১৫টি হলসহ সব সিনেপ্লেক্স, রায়হান রাফির ‘পরাণ’ ১১টি সিনেমা হল  ও সিনেপ্লেক্স এবং অনন্য মামুনের ‘সাইকো’ ১৭টি হল ও সিনেপ্লেক্সে চলছে।

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর