শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪৩

সংকট কাটেনি পিয়াজ নিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক

সংকট কাটেনি পিয়াজ নিয়ে

পিয়াজ নিয়ে সংকট কাটেনি। গতকালও রাজধানীর বাজারে ২৩০ টাকার বেশি দামে প্রতি কেজি পিয়াজ বিক্রি হয়েছে। বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের ভ্রাম্যমাণ আদালতসহ বিভিন্ন সংস্থা মাঠপর্যায়ে কাজ করছে। এদিকে মিসর থেকে কার্গো বিমানে আমদানিকৃত পিয়াজ মঙ্গলবার দেশে পৌঁছাবে। টিসিবির মাধমে এসব পিয়াজ বিক্রি করা হবে। 

রাজধানীর বাজারগুলোতে গতকাল পিয়াজ ২২০ টাকার ওপরে বিক্রি হয়েছে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান শুরু হলে দর অনেক স্থানে কমার সংবাদ পাওয়া গেলেও কর্মকর্তারা চলে যাওয়ার পরে আগের দামেই বিক্রি করেছে ব্যবসায়ীরা। দেশি পিয়াজ ২২০ থেকে ২৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। একই পিয়াজ কোনো কোনো বাজারে ২৪০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। মিয়ানমার ও মিসরের পিয়াজও ১৯০ থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হয়। গতকাল রাজধানীর কারওয়ানবাজার, শ্যামবাজারসহ কয়েকটি খুচরা বাজারে এ দামে পিয়াজ বিক্রি হতে দেখা গেছে।

কারওয়ানবাজারে দেশি পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২২০ থেকে ২২৪ টাকায়, মিসরের পিয়াজ ১৯০ টাকা ও মিয়ানমারের পিয়াজ ২২০ টাকায়। এ বাজারে এক সপ্তাহেরও কম সময়ের ব্যবধানে কেজিতে পিয়াজের দাম বেড়েছে অন্তত ৮০ টাকা। শ্যামবাজারে দেশি পিয়াজ এখন ২০০ থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মিয়ানমার ও মিসরের পিয়াজ ১৮০ থেকে ১৯০ টাকায়। গতকাল প্রশাসনের পক্ষ থেকে শ্যামবাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের পর বাজারে পিয়াজ বিক্রি বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মহাখালীর বউবাজারে দেশি পিয়াজ ২৪০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। মিসরের পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকায়। কোনো কোনো দোকানে দাম আরও বেশি। বিজয় স্মরণীর কলমিলতা বাজার ও ফার্মগেট ইন্দিরা রোডে ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা কেজিতে দেশি পিয়াজ বিক্রি হতে দেখা গেছে।


আপনার মন্তব্য