শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ মে, ২০২০ ২৩:৫৩

ত্রাণ চোরদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

ত্রাণ চোরদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেছেন, ত্রাণ চোরদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে, যাতে অন্য কেউ আর ভবিষ্যতে ত্রাণ চুরি করতে সাহস না পায়। গতকাল রাজধানীর কাকরাইলে পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঢাকা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এবং জাতীয় পার্টির কো- চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার ঈদ উপহার নেতা-কর্মীদের মাঝে বিতরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বিভিন্ন থানার ৩০০ রাজনৈতিক কর্মীর মাঝে এ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে ছিল চাল, তেল, আলু, ডাল, চিনি, পিয়াজ ও সেমাই। উল্লেখ্য, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি তার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে গত ২ মাস ধরে নিজ নির্বাচনী এলাকা শ্যামপুর-কদমতলীর ৫ হাজারেরও বেশি পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। এ ছাড়া প্রায় তিন শতাধিক ব্যক্তিকে নগদ অর্থ প্রদান করেছেন। গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, দেশের এমন সংকটময় মুহূর্তে হতদরিদ্র মানুষ জীবিকা হারিয়ে ত্রাণের জন্য রাস্তায় ঘুরছে। খেটে খাওয়া মানুষকে বাঁচাতে সরকারও ব্যাপক ত্রাণ কার্যক্রম চালাচ্ছে। কিন্তু একদল অসাধু জনপ্রতিনিধি হতদরিদ্রের ত্রাণ সামগ্রী চুরি করছে। তাদের কেউ কেউ গ্রেফতার হয়েছে এবং সাময়িক বরখাস্ত করেছে। তিনি বলেন, সাময়িক বরখাস্তই যথেষ্ট নয়, ত্রাণ চোরদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

 তিনি আরও বলেন, সরকার বিভিন্ন সময়ে স্বাস্থ্য খাতে বিপুল পরিমাণে অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। এখন অভিযোগ উঠেছে, সেই বরাদ্দ লোপাট হয়েছে। সরকারের উচিত একটি তদন্ত কমিশন গঠন করা। যদি কেউ দোষী প্রমাণ হয় তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, কেন্দ্রীয় নেতা রেজাউল ইসলাম ভূইয়া, জহিরুল আলম রুবেল, সম্পাদক সুজন দে প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য