শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:২১

সন্ত্রাসবাদের বৈশ্বিক যুদ্ধে পুলিশ অংশীদার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

সন্ত্রাসবাদের বৈশ্বিক যুদ্ধে পুলিশ অংশীদার

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেছেন, ২৪ বছর আমি একজন পুলিশ অফিসার ছিলাম। আমি যখন পুলিশের সঙ্গে থাকি তখন আমার মনে হয়, আমি পরিবারের সঙ্গে আছি। আমি আপনাদের ধন্যবাদ দিতে চাই সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বৈশ্বিক যুদ্ধে আপনারাও আমাদের অংশীদার। গতকাল চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) ক্রাইসিস রেসপন্স টিম ও বোম ডিসপোজাল ইউনিটের যৌথ মহড়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। নগরের দামপাড়া পুলিশ লাইন্সের এসএএফ মাঠে এ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। রাষ্ট্রদূত পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, কাজের চেয়ে জরুরি কিছু হতে পারে না। আপনারা এ দেশের নাগরিকদের সুরক্ষা দেন,  দেখভাল করেন। এর থেকে বড় দায়িত্ব আর কিছু হতে পারে না, যারা মানুষের জীবন বাঁচায়। পুলিশ হিসেবে আপনারা মানুষের জন্য যে কাজ করেন তার জন্য আপনারা ধন্যবাদ পান না। আমি যখন বাংলাদেশে থাকি আমার দায়িত্বেও আপনারা থাকেন। যার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের রিজিওনাল সিকিউরিটি অফিসার প্রিসটিনা উইলিয়ামস ও সিনিয়র কাউন্টার টেররিজম অ্যাডভাইজার ক্রিসটোপার উইনগার্ড। সিএমপি কমিশনার বলেন, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে এ রকম একটা প্রশিক্ষণ এক মাস ধরে হচ্ছে। আমাদের এ প্রশিক্ষণ পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত। তিনি আমাদের এ ট্রেনিংয়ের জন্য যে সরঞ্জামগুলো রয়েছে সেগুলো ব্যবহারের উপযুক্ত কিনা দেখেছেন। সঙ্গে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন, আগামীতেও এ ধরনের ট্রেনিং অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, পুলিশ বাহিনীতে অত্যাধুনিক ইউনিট গঠন করা সময়ের দাবি। বর্তমান সরকারের এ সময়ের মধ্যে সব মহানগরে এ ধরনের টিম গঠিত হয়েছে। এখন এগুলোর চর্চা এবং প্রশিক্ষণ ঝালাই করা হচ্ছে।

কমিশনার বলেন, সাইবার টিম আমরা ওপেন করছি। প্রশিক্ষণ শুরু হবে। ইতিমধ্যে সাইবার ফরেনসিক ল্যাব তৈরি হয়ে যাচ্ছে। যারা  বৈশ্বিকভাবে সাইবারে জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা করছে তাদের সে ক্রাইমগুলো বের করার জন্য সিএমপি সক্ষমতা রাখে।