Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:০৯

তেল, লোশন নাকি গ্লিসারিন!

শীত মানেই রূপবতীদের বাড়তি টেনশন। শীতে শুষ্কতা রোধে প্রয়োজন বাড়তি সচেতনতা। তবে শীতে শুষ্কতা রোধে কোনটি সর্বোপযোগী? সেসব তথ্যের উত্তর জানাতেই আমাদের আজকের ফিচার।

নূরজাহান জেবিন

তেল, লোশন নাকি গ্লিসারিন!
o ঋতুভেদে ত্বকের পরিবর্তন বিবেচনা করে তেল, লোশন বা গ্লিসারিন ব্যবহার করা ভালো।
বিশেষজ্ঞদের মতে, শীতে লোশনের চেয়ে গ্লিসারিন এবং গ্লিসারিনের চেয়ে প্রাকৃতিক অলিভ অয়েল ভালো।  
o শীতকালে শুধু ত্বক ময়েশ্চারাইজার করলেই চলবে না, সুষম খাদ্যাভ্যাস এবং প্রচুর পানিও পান করতে হবে।

 

শীত আসতে আর দেরি নেই। প্রকৃতি এমনটাই জানান দিচ্ছে বেশ কয়েকদিন ধরে। গ্রামাঞ্চলে পুরোপুরি শীত পড়লেও শহরে দিনে গরম আর রাতে ঠান্ডার আবহ মেলে। তাই শীতের শুরু থেকেই প্রয়োজন ত্বকের যত্ন। সাধারণত ঋতুভেদে প্রকৃতির পরিবর্তনের কারণেই ত্বকে শুষ্কতা দেখা দেয়, বিশেষ করে শীতকালে এ সমস্যা দেখা দেয়।

 

এ সময় ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে আমরা নানা ধরনের ময়েশ্চারাইজার ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করে থাকি। অনেকে আবার ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সেকেলে তেলের ওপর নির্ভর করে থাকেন। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, কোন উপকরণটি আর্দ্রতা ধরে রাখতে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী? এমন প্রশ্নের জবাবে ওমেন্স ওয়ার্ল্ডের পরিচালক এবং রূপ বিশেষজ্ঞ ফারনাজ আলম বলেন, ‘ঋতুভেদে ত্বকের পরিবর্তন বিবেচনা করে ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে তেল, লোশন ও গ্লিসারিন সবগুলোই কার্যকর। তবে শীতের শুষ্ক আবহাওয়ায় লোশনের চেয়ে গ্লিসারিন এবং গ্লিসারিনের চেয়ে প্রাকৃতিক তেল ভালো। সে ক্ষেত্রে অলিভ অয়েল বেছে নিতে পারেন।’

 

ত্বকের সঠিক ময়েশ্চারাইজার

ত্বকের গঠন ও প্রকৃতি, শুষ্কতা বা তৈলাক্তভাবের ওপর নির্ভর করে ক্রিম, লোশন বা তেল বেছে নেওয়া প্রয়োজন। তবে গ্লিসারিন ত্বকের যত্নে খুবই ভালো। এতে কোনো রকমের সন্দেহ নেই। গ্লিসারিন সরাসরি বা অল্প পরিমাণে পানি মিশিয়েও ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। তবে প্রাকৃতিক তেল কিন্তু ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করতে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী। তবে তেল ব্যবহার করতে চাইলে অলিভ অয়েল বেছে নিতে পারেন নিঃসন্দেহে। আবার ত্বকের সুস্বাস্থ্যের জন্য ক্রিমও ব্যবহার করতে পারেন। কারণ, উদ্দেশ্য একটাই, ত্বকের সঠিক ময়েশ্চার। তবে ক্রিমের মধ্যে রয়েছে রকমফের। শুষ্ক আবহাওয়ায় কোল্ড ক্রিম বা লোশন জাতীয় ময়েশ্চার ব্যবহার করা যেতে পারে।

 

সকালে ঘুম থেকে ওঠে, গোসলের পর পর, বাইরে যাওয়ার অন্তত ৩০ মিনিট আগে এবং রাতে ঘুমানোর আগে তেল, লোশন কিংবা গ্লিসারিনের যে কোনোটি ব্যবহার করুন।


আপনার মন্তব্য