Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:১৯

লবণে লাবণ্যময়

বয়স আঠারো থেকে ছিশট্টি যাই হোক, রূপবোধনে নানা প্রাকৃতিক উপাদানের ব্যবহার রয়েছে। তেমনি একটি সি সল্ট বা লবণ। শুষ্ক ও মলিন ত্বককে প্রাণবন্ত করে তুলতে এর জুড়ি নেই।

উম্মে হানি

লবণে লাবণ্যময়
♦ মডেল : আলিশা মলিক ♦ ছবি : নেওয়াজ রাহুল
o লবণ ও নারিকেল তেলের মিশ্রণ রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে ত্বককে করে নরম ও কোমল।
o নিয়মিত কয়েক দিন লবণ, হলুদ গুঁড়া ও টকদইয়ের মিশ্রণ ব্যবহার করে দেখুন ব্রণ দূর হয়ে যাবে।

 

রাজা-রানীর লবণের গল্পটি নিশ্চয়ই মনে আছে! লবণের মতো ভালোবাসা। আসলে লবণ ছাড়া রান্না একদম পানসে। ত্বকের নানা সমস্যা সমাধানে সবচেয়ে প্রাকৃতিক এবং কার্যকর উপায় হলো লবণ থেরাপি।  এটা প্রাকৃতিকভাবেই অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল হওয়ায় তা শুষ্ক ত্বকের জন্যও ভালো। এ ছাড়া ত্বকের পুনঃযৌবন এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে কাজ করে এই লবণ থেরাপি। সামুদ্রিক লবণে উচ্চমাত্রার পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং আরও নানা ধরনের উপাদান থাকায় তা ত্বকের মরা কোষগুলো পুনর্জীবিত করতে সাহায্য করে। এটা ত্বকের নিপ্রভতা এবং জ্বালা থেকেও রক্ষা করে। এখানেই শেষ নয়, এক কোষের সঙ্গে আরেক কোষের যোগাযোগের উন্নতি ঘটায় লবণ। গোসলের পানিতে লবণ দিয়ে গোসল করলে ত্বকের মৃতকোষগুলো ঝরে যায়। ত্বককে প্রাণবন্ত করে তুলতে এর জুড়ি নেই। তবে রূপচর্চায় লবণের ব্যবহারের পর অবশ্যই ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করতে হবে। অন্যথায় ত্বক শুষ্ক আর জেল্লহীন হয়ে পড়বে। তবে ত্বকে যদি কোনো সমস্যা বোধ করেন তারপর আর ব্যবহার না করাই ভালো। জেনে নেওয়া যাক রূপকাহনে লবণের গুণাগুণ।

 

প্রাকৃতিক টোনার

আপনার ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত? নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন লবণের পানি। এজন্য একটি স্প্রে বোতলে এক টেবিল চামচ লবণ এক আউন্স পানির সঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। দিনে দুবার চোখ এড়িয়ে মিশ্রণটি মুখে স্প্রে করলে উপকার পাবেন। এটি ত্বককে গভীরভাবে পরিষ্কারের পাশাপাশি ত্বকের অতিরিক্ত তেল নিঃসরণ করে।

 

ফেসিয়াল স্ক্রাব

রূপচর্চায় লবণের স্ক্রাবের কথা নিশ্চয় আজই প্রথম শুনলেন। আসলে রূপকাহনে এটি নতুন কিছু নয়। বাজারের নামিদামি ব্র্যান্ডের ফেসিয়ালগুলোতে সি সল্ট ব্যবহার হয়ে থাকে। ৩ টেবিল চামচ মধুর সঙ্গে ১ টেবিল চামচ লবণ মিশিয়ে ফেসিয়াল স্ক্রাব তৈরি করে নিন। এটি ত্বকে ভালো করে ম্যাসাজ করলে ত্বকের মৃত কোষ দূর হয়ে ত্বক হবে উজ্জ্বল।

 

বডি স্ক্রাব

ত্বকের মৃতকোষ দূর করতে সি সল্ট দারুণ। বাজারের নানা রকমের বাথ সল্ট কিনতে পাওয়া যায়। চাইলে ঘরোয়া উপায়ে বডি স্ক্রাব তৈরি করে নিতে পারেন। এক কাপের তিনভাগের একভাগ লবণের সঙ্গে আধা কাপ অলিভ অয়েল ভালো করে মিশিয়ে বডি স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এটি মৃতকোষ তুলে ত্বককে প্রাণবন্ত করে তুলবে।

ত্বকের ইন্ট্যান্ট গ্লো

দ্রুত ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে লবণ দারুণ কার্যকরী। গোলাপজলের সঙ্গে দুই টেবিল চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন সকালে মিশ্রণটি দিয়ে দুই থেকে তিনবার মুখ ধুয়ে ফেলুন। গোলাপজল ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে এবং লবণ ত্বকের কালচে ভাব দূর করবে। মিশ্রণটি ফ্রিজারে রেখে দিয়ে বেশ কয়েক দিন ব্যবহার করা যায়।

 

চুলের খুশকি দূরীকরণ

মাথার ত্বকের মৃত কোষ দূর করতেও লবণ ব্যবহার করা যেতে পারে। এটি চুলে জমে থাকা অতিরিক্ত তেল শুষে নিয়ে                মাথার স্কাল্পে ফাঙ্গাস সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচায়। চুল ভাগ করে নিয়ে পুরো মাথায় ১-২ টেবিল চামচ লবণ ছড়িয়ে দিন। এরপর ভেজা হাতে আলতোভাবে ১০          মিনিট পুরো মাথা হালকাভাবে ম্যাসাজ করুন। সব শেষে চুল ধুয়ে কন্ডিশনার লাগিয়ে নিতে হবে।

 

নখ উজ্জ্বল করতে

নখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে লবণ দারুণ কার্যকর। এক চা চামচ লবণের সঙ্গে সমপরিমাণ বেকিং সোডা, ১ চা চামচ লেবুর রস, আধা কাপ কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটিতে অন্তত ১০ মিনিট নখ ভিজিয়ে রাখুন। এরপর নরম ব্রাশ দিয়ে নখ ঘষে পরিষ্কার করে নিন। এতে নখ পরিষ্কার ও চকচকে হবে।


আপনার মন্তব্য