শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:১১

কাশ্মীরকে ইন্টারনেট দিতে চেয়ে হাসির খোরাক পাকিস্তানের মন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

কাশ্মীরকে ইন্টারনেট দিতে চেয়ে হাসির খোরাক পাকিস্তানের মন্ত্রী

১০০ দিনের বেশি সময় কেটে গেছে। কাশ্মীরে এখনও স্বাভাবিক হয়নি ইন্টারনেট পরিষেবা। এই অবস্থায় সেখানে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার কথা জানান পাকিস্তানের বিজ্ঞান এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী ফওয়াদ হুসেন চৌধুরী। খবর কলকাতা টাইমস এর।

তিনি জানান, এখনকার দিনে ইন্টারনেট পরিষেবা মৌলিক অধিকারের মধ্যে পড়ে। তিনি পাকিস্তানের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা সুপারকো’কে নির্দেশ দিয়েছেন স্যাটেলাইটের মাধ্যমে কাশ্মীরে ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করা যায় কিনা তা খতিয়ে দেখার।

মন্ত্রীর এমন মন্তব্য ছড়িয়ে পড়তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা শুরু হয়। নেটিজেনরা পাকিস্তানের বিজ্ঞান মন্ত্রীর মন্তব্য লুফে নেন। নতুন হাসির খোরাক পেয়ে জমিয়ে শুরু হয় ফাওয়াদ চৌধুরীকে নিয়ে ট্রোলিং। স্যাটেলাইট থেকে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার যুক্তি শুনে হেসে লুটোপুটি নেটিজেনরা।

এক সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী লিখেছেন, এই হল নয়া পাকিস্তান। মানুষ পাকিস্তানের মন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছে স্যাটেলাইট থেকে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার যুক্তি শুনে। আর ইনি হলেন সেদেশের বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি মন্ত্রী। 

এছাড়া আরও অনেক টুইটে ফাওয়াদ চৌধুরীর প্রযুক্তি মন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও অবিবেচকের মতো মন্তব্য করে তিনি নিজেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক বানান। বিজ্ঞান মন্ত্রী হয়েও তিনি নিজের দেশের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা সুপারকো বানান ভুল লেখেন। ভারতের বিপুল অর্থ ব্যয় করে চন্দ্রযান-২ অভিযান নিয়ে প্রশ্ন তুলে ট্রোলিংয়ের শিকার হন ফওয়াদ চৌধুরী।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য