শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:৫৮

খুনের স্বীকারোক্তি নিয়ে গ্যাংস্টারের ফেসবুক পোস্টে হতবাক পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

খুনের স্বীকারোক্তি নিয়ে গ্যাংস্টারের ফেসবুক পোস্টে হতবাক পুলিশ

বছর ছাব্বিশের তরতাজা যুবককে গুলিতে ঝাঁঝরা করে দিয়েছিল গ্যাংস্টাররা। আটবার গুলি খেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েছিলেন ওই যুবক। ভরসন্ধ্যায় এমন ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের অমৃতসরে। আততায়ীদের খুঁজতে চিরুনি তল্লাশি শুরু করেছিল পুলিশ। তবে বেশি খোঁজাখুঁজি করার আগেই ধরা দিয়েছে এক দুষ্কৃতী। 

জানা গেছে, পুলিশের কাছে গিয়ে আত্মসমর্পণ করেনি ওই আততায়ী। বরং ফেসবুকে জানিয়েছে নিজের কাজের জন্য কত গর্বিত সে। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তের নাম হরবিন্দর সিং সান্ধু। পুরনো শত্রুতার জেরেই ২৬ বছরের ওই যুবককে খুন করেছে সে। পুলিশ  জানিয়েছে, মৃতের নাম মনদীপ সিং। মঙ্গলবার স্কুটার চালিয়ে পাণ্ডরি গ্রামে নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন তিনি। আচমকাই মাঝরাস্তায় তার পথ আটকায় একটি মোটরসাইকেল। দু’জন আরোহী ছিল ওই মোটরসাইকেলে। তাদের মধ্যেই একজন ছিল হরবিন্দর। মনদীপকে নিশানা করে আটবার গুলি চালায় সে। পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ ঘটে এই ঘটনা।

খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। কে বা কারা মনদীপের খুনের সঙ্গে যুক্ত তা জানতে শুরু হয় তদন্ত। সেই সময়েই পুলিশের নজরে আসে একটি ফেসবুক পোস্ট। যেখানে জনৈক হরবিন্দর সিং সান্ধু এই ঘটনার দায় স্বীকার করেছে। তবে খুন করে তার মধ্যে ন্যূনতম অনুতাপ বা অপরাধবোধটুকুও নেই। বরং হাবভাব এমন যে এমন কাজ করে বাহাদুরি জাহির করেছে সে। খোঁজখবর নিয়ে পুলিশ জানতে পারে এই হরবিন্দর পাঞ্জাবের অন্যতম বৃহত্তম শহর বাটালার কুখ্যাত গ্যাংস্টার।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই ফেসবুক পোস্টে হরবিন্দর লিখেছে, ‘পুরনো শত্রুতার জেরেই পাণ্ডরি গ্রামের যুবক মনদীপকে খুন করেছি আমরা। এটা আমাদের কাছে গর্বের ব্যাপার। যে ভুল মনদীপ করেছিল ভবিষ্যতে সেই ভুল আর কেউ করলে তারও একই পরিণতি হবে। পুলিশ তাদের কাজ করুক। তবে কোনও নির্দোষকে যেন এই ঘটনায় আটক করা না হয়।’ যদিও এখনও গ্রেফতার হয়নি হরবিন্দর। পুলিশ জানিয়েছে তাকে আটকে তল্লাশি চলছে। সূত্র : দ্য ওয়াল।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য