শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল, ২০২১ ১৮:১৮
প্রিন্ট করুন printer

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে দৈনিক গড়ে ৩ জনের মৃত্যু!

লাবলু আনসার, যুক্তরাষ্ট্র:

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে দৈনিক গড়ে ৩ জনের মৃত্যু!

গত ২৯ মার্চ থেকে প্রতিদিনই যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলি বা হয়রানির শিকার হয়ে ৩ জন করে নিহত হচ্ছেন। নিউইয়র্ক টাইমসের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশী আচরণে নৃশংসতার উদ্বেগজনক এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। 

গত ১৬ এপ্রিল প্রকাশিত এ সংবাদে বলা হয়, ডেরেক সৌভিনের বিচার আনুষ্ঠানিকভাবে শুরুর ৭ ঘণ্টা আগে শিকাগোর এক অফিসার কর্তৃক ১৩ বছরের এক কিশোরকে গুলি করে হত্যার ঘটনা ঘটে। এর পরের দিন ফ্লোরিডার জ্যাকসন ভিলের একটি হোটেলে ৩২ বছরের একজন নিহত হন পুলিশের গুলিতে। তার পরের দিন নিউ হ্যামশায়ার স্টেটের ক্লিয়ারমন্টে ৪০ বছর বয়েসী মানসিক বিকারগ্রস্ত একজনের প্রাণ ঝরে পুলিশের বুলেটে। এভাবেই সারা আমেরিকায় দৈনিক গড়ে তিনজনের প্রাণ গেছে পুলিশের গুলিতে। 

অর্থাৎ একদিকে বিচার, অন্যদিকে অব্যাহত রয়েছে পুলিশী বর্বরতার। টাইমসের অনুসন্ধানে উদঘাটিত হয়েছে যে, ২৯ মার্চ বিচার শুরুর দিন থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত ৬৪ জন নিহত হয়েছে পুলিশের বুলেটে। নিহতদের অর্ধেকেরও বেশী হচ্ছে কৃষ্ণাঙ্গ এবং ল্যাটিনো। অর্থাৎ দৈনিক গড়ে ৩ জনেরও বেশী আমেরিকানের প্রাণ কেড়েছে পুলিশের গুলিতে। 

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস অঙ্গিকার করেও পুলিশী আচরণ ঢেলে সাজাতে কংগ্রেস এখন পর্যন্ত যথাযথ একটি বিল পাশে সক্ষম হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। মিনেসোটা স্টেটেরই ব্রুকলীন সেন্টারে ট্রাফিক ভায়োলেশনের জন্য ২০ বছর বয়েসী ডোন্টে রীটকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে লাগাতার বিক্ষোভ চলছে কার্ফিউ ভঙ্গ করে। এই বিক্ষোভের অন্যতম আয়োজক সংস্থা ‘ব্ল্যাক ভিশন্স’র নির্বাহী পরিচালক মিস্কি নূর এক বিবৃতিতে বলেছেন, আর কত প্রাণ ঝরলে আমরা শোকে আচ্ছাদিত হবো? জর্জ ফ্লয়েড হত্যার শোকে বিহব্বল মানুষেরা আর কত লাশ বইবে। মানুষের পীঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। সহ্য করার আর ক্ষমতা নেই। এভাবে চলতে দেয়া যায় না। গত সপ্তাহে শিকাগো সিটি মেয়র পুলিশকে সতর্কতার সাথে গ্রেফতার অভিযানে নামার পরামর্শ দিয়েছেন। 

১৩ বছর বয়েসী এডাম টলেডোকে ধরার সময় পুলিশ অফিসার কীভাবে গুলি ছুড়েছে এবং শিশুটি মারা গেছে, তা ঐ অফিসারের ‘বডি ক্যামেরায়’ রেকর্ড হয়েছে। সেই দৃশ্য অবলোকনের পর জনমনে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে সিটি মেয়র এমন আহবান জানান। শিশুটি ছিল ল্যাটিনো সম্প্রদায়ের। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর