রবিবার, ২৯ মে, ২০২২ ০০:০০ টা

পুলিশ বলছে, দ্রুত ব্যবস্থা না নিয়ে তারা ভুল করেছে

টেক্সাসে স্কুলে হামলা

পুলিশ বলছে, দ্রুত ব্যবস্থা না নিয়ে তারা ভুল করেছে

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে বন্দুকধারীর হামলায় ১৯ শিশু ও দুই শিক্ষক নিহত হন। শুক্রবার নিহতদের স্মরণে অস্থায়ী স্মৃতিস্তম্ভে সাধারণ মানুষের ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন -এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের স্কুলে হামলার ঘটনায় তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা না নেওয়ায় নিজেদের ভুল স্বীকার করেছে পুলিশ। বলা হচ্ছে, শ্রেণিকক্ষে ঢুকে বন্দুকধারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রায় এক ঘণ্টা দেরি করাটা ‘ভুল সিদ্ধান্ত’ ছিল বলে স্বীকার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবারের ওই হামলায় ১৯ শিশু ও ২ শিক্ষক নিহত হন। একটি শ্রেণিকক্ষে এক ঘণ্টা আটকে রেখে এ হত্যা চালানো হয়। পুলিশ কর্মকর্তারা প্রাথমিকভাবে ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পরও দীর্ঘ সময় ধরে শ্রেণিকক্ষে ঢোকার চেষ্টা না করে অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্সের জন্য বাইরে অপেক্ষা করছিলেন। অথচ এই সময়ের মধ্যে শ্রেণিকক্ষের শিক্ষার্থী এবং অন্যরা পুলিশের সাহায্য চেয়ে ৯১১ নম্বরে ফোন করেছিল। পুলিশ সে ডাকে সাড়া দিয়ে দ্রুত কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। হামলার ঘটনায় আইনপ্রয়োগকারীদের ভূমিকা নিয়ে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছ থেকে সমালোচনা ও প্রশ্নের মুখে শেষ পর্যন্ত পুলিশ ভুল স্বীকার করল। টেক্সাসের জননিরাপত্তা বিভাগের পরিচালক কর্নেল স্টিভেন ম্যাক্রো শুক্রবার এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে ভুলের স্বীকারোক্তি দিয়ে বলেছেন, ‘ঘটনাস্থলে উপস্থিত কমান্ডারদের শ্রেণিকক্ষের দরজা ভেঙে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা না করে বাইরে বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত পুলিশ বাহিনীর জন্য অপেক্ষা করে থাকাটা ‘ভুল সিদ্ধান্ত ছিল’।’ ‘কর্মকর্তারা প্রথমে সেখানে পৌঁছার পর শ্রেণিকক্ষে ঢুকে বন্দুকধারী রামোসকে হত্যা করেননি। বন্দুকধারীকে আটকানো হয়েছে এবং আর কোনো ঝুঁকি নেই, ফলে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য সময় আছে; এমনটিই ভেবেছিলেন তারা। যদিও শ্রেণিকক্ষের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সাহায্যের জন্য আবেদন এসেছিল, বলেন ম্যাক্রো। তিনি আরও বলেন, ‘কেউ একজন ৯১১ নম্বরে কয়েকবার ফোন করেছিল। বিবিস

সেই ফোনকলে কয়েকজন শিক্ষার্থী মারা যাওয়ার কথা জানানোর পাশাপাশি আট থেকে নয়জন জীবিত আছে বলেও জানানো হয়েছিল। এক শিক্ষার্থী ১২টা ৪৭ মিনিটের দিকে ফোন করে তৎক্ষণাৎ পুলিশ পাঠাতে অপারেটরকে অনুরোধ করে।’ ‘কিন্তু পুলিশ কর্মকর্তারা ১২টা ৫০ মিনিট পর্যন্তও শ্রেণিকক্ষে ঢোকেননি। পরে মার্কিন সীমান্ত প্রহরা টিমের সদস্যরা একটি চাবি ব্যবহার করে শ্রেণিকক্ষের দরজা খোলে এবং ভিতরে ঢুকে রামোসকে হত্যা করেন।’

বন্দুকধারী মরলেন নারী পথচারীর গুলিতে : যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার চার্লসটনে আধা-স্বয়ংক্রিয় বন্দুক দিয়ে একদল লোকের ওপর গুলিবর্ষণ শুরু করা এক ব্যক্তিকে পথচারী এক নারী গুলি করে মেরে ফেলেছেন বলে জানিয়েছে সেখানকার পুলিশ। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৩৭ বছর বয়সী ডেনিস বাটলার আগেও নানা অপরাধের জন্য পরিচিত ছিলেন; একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আসা জনাচল্লিশেক লোককে ‘টার্গেট’ বানানোর পর তিনি নিহত হন।

ওই নারীর ক্ষিপ্র প্রতিক্রিয়া অনেক জীবন বাঁচিয়েছে এবং হতে পারত এমন একটি ‘ম্যাস শুটিং’ ঠেকিয়েছে, বলেছেন পুলিশের মুখপাত্র টন হ্যাজেলেট। টেক্সাসে একটি স্কুলে গুলির ঘটনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে তীব্র বিতর্ক চলার মধ্যে ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ায় এ ঘটনা ঘটল। বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যার দিকেও চার্লসটনের ওই এলাকা দিয়ে গাড়ি চালিয়ে গিয়েছিলেন বাটলার, শিশুরা খেলছিল এ কারণে তাকে আস্তে চালিয়ে যেতে বলা হয়েছিল। পরে তিনি এআর-১৫ ধরনের বন্দুক হাতে ফিরে আসেন এবং তার গাড়ি থেকে অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সের বাইরে জন্মদিনের অনুষ্ঠান লক্ষ্য করে গুলি চালান।

সর্বশেষ খবর