শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:২৮

কক্সবাজারে জমি নিয়ে গোলাগুলিতে দুইজন নিহত

প্রতিদিন ডেস্ক

কক্সবাজারে জমি নিয়ে গোলাগুলিতে দুইজন নিহত

কক্সবাজার ও বরিশালে জমি নিয়ে বিরোধে দুই পক্ষের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

কক্সবাজার প্রতিনিধি জানান, কক্সবাজারের পেকুয়ায় ওয়াক্ফ এস্টেটের জমির আধিপত্য নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলি হয়েছে। গুলিতে দুই যুবক নিহত ও আট-দশ জন আহত হয়েছেন। এ ব্যাপারে মহিলাসহ ১১ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে দেশি সাতটি লম্বা বন্দুক উদ্ধার করে। গতকাল দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের বিলহাচুরা এলাকায় আরিফ মেম্বার ও হালিমার লোকজনের মধ্যে এ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহতরা হলেন- বিলহাচুরা এলাকার আবদুর রহমানের ছেলে নেজাম উদ্দিন (৩৫) ও জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে আজিজুল হক (৩৭)। এ সময় ছররা গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন উভয় পক্ষের আট-দশ জন। তারা বিভিন্ন হাসপাতাল ও প্রাইভেট ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিয়েছেন। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আটকরা হলেন- আবদুল কাদের (৩৫), মো. ইকবাল (২৫), মো. নুর (৩২), মো. মিজানুর রহমান (২৮), মো. ওসমান গনি (২৪), মো. ইয়াহিয়া (৩৫), মো. শাহজাহান (৩৮), ছেনুয়ারা বেগম (৩৫), ওয়াহিদুল ইসলাম (২২), দিদারুল ইসলাম (১৮) ও আতাউদ্দিন (১৯)। এরা সবাই পেকুয়ার বাসিন্দা। পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাকির হোসেন ভুঁইয়া নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জমির বিরোধ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে। এতে দুজন মারা যান। পুলিশ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে মহিলাসহ ১১ জনকে আটক করেছে, উদ্ধার করা হয়েছে সাতটি বন্দুক।

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল জানান, বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার বিশারকান্দি ইউনিয়নের মরিচবুনিয়া গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত ও ১১ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার রাতের ঘটনায় নিহত আশীষ বাড়ৈ (৪৮) মরিচবুনিয়া গ্রামের অমল বাড়ৈর ছেলে। সংঘর্ষে আহতরা হলেন- নিহতের স্ত্রী স্নিগ্ধা বাড়ৈ, সিমন সরকার, মিলন চৌধুরী, অমল বাড়ৈ, আশালতা বাড়ৈ, হান্না চৌধুরী, মো. ফয়সাল, মিঠুন চৌধুরী, সুজন চৌধুরী, জয় সরকার ও গোপালী বাড়ৈ। এর মধ্যে প্রথমোক্ত ছয়জনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল হাসপাতালে এবং অন্যদের বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

বানারীপাড়া থানার ওসি খলিলুর রহমান জানান, হামলার ঘটনায় প্রতিপক্ষের সভারঞ্জনের ছেলেসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন চারজনকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য