শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:৫২

মিন্নির স্বীকারোক্তি নিয়ে এসপির সংবাদ সম্মেলনের তথ্য চেয়েছে হাই কোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার বিষয়ে পুলিশ সুপার কখন সাংবাদিকদের ব্রিফ করেছিলেন, তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট। পুলিশ সুপারের ওই ব্রিফিং মিন্নি জবানবন্দি দেওয়ার আগে না পরে হয়েছিল, তা বিস্তারিতভাবে তুলে ধরে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ।

গতকাল মিন্নির জামিন আবেদনের শুনানির একপর্যায়ে আদালত তার আইনজীবী জেড আই খান পান্নাকে আজ বেলা ২টার মধ্যে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যসহ সম্পূরক আবেদন দাখিল করতে বলে। এ সময় মিন্নির আরেক আইনজীবী সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোমজাত উদ্দিন আহমেদ মেহেদীও আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পুলিশ লাইনসে নিয়ে মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ, গ্রেফতার দেখানো, পরদিন তাকে আদালতে হাজির করা, রিমান্ড শুনানি, রিমান্ডে নেওয়ার পর তাকে কোথায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়- সেসব বিষয়ও বিস্তারিতভাবে জানাতে বলা হয় ওই সম্পূরক আবেদনে। পাশাপাশি ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পীকেও এ বিষয়গুলো ভালোভাবে অবগত হতে বলেছে আদালত। এর আগে হাই কোর্টের একটি বেঞ্চে জামিন আবেদন করেছিলেন মিন্নির আইনজীবীরা। কিন্তু সেখানে জামিন পাওয়ার আশা না দেখে আবেদনটি ফিরিয়ে নিয়ে রবিবার তা বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চে দাখিল করা হয়। গতকাল শুনানিতে মিন্নির আইনজীবী জেড আই খান পান্না বলেন, মিন্নির রিমান্ড আবেদনের শুনানিতে সেদিন তার পক্ষে কোনো আইনজীবী পাওয়া যায়নি। আর পুলিশ তাকে রিমান্ডে পেয়ে পুলিশ লাইনসে নিয়ে গিয়েছিল, যা নিয়মের লঙ্ঘন। মিন্নি ১৯ বছরের একটি মেয়ে, সে স্বামীকে রক্ষা করার চেষ্টা করেছে, সেটা ভিডিওতে এসেছে। কিন্তু পুলিশ সেই ভিডিও ১১ ভাগে ভাগ করে এখন বলছে, মিন্নি এ হত্যায় জড়িত। পরে বিচারক বলেন, কোনো কোনো পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, মিন্নি হাকিমের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেওয়ার আগেই পুলিশ সুপার সংবাদ সম্মেলন করে তার ‘অপরাধ স্বীকার’ করার খবর সাংবাদিকদের দেন। আসলে সেদিন কী ঘটেছিল, পুলিশ সুপার কী বলেছিলেন, কখন বলেছিলেন- এ বিষয়গুলো তখন আদালতকে জানাতে মিন্নির আইনজীবীকে নির্দেশ দেওয়া হয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর