শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪৭

লোকমান কারাগারে সেলিমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

লোকমান কারাগারে সেলিমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে

দুর্নীতির মামলায় রিমান্ড শেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের পরিচালক ইনচার্জ লোকমান হোসেন ভূঁইয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়। এদিকে ক্যাসিনোকান্ডে  গ্রেফতার সেলিম প্রধানকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রস্তুতি নিচ্ছে দুদক। দুদক সূত্র জানায়, রবি-সোমবার সেলিম প্রধানকে দুদকে আনা হতে পারে। রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে লোকমান ক্যাসিনো ব্যবসা, তা নিয়ন্ত্রণ ও কমিশনার সাঈদ সম্পর্কেও দুদকে বিস্তারিত তথ্য দিয়েছেন। দুদক সূত্র জানায়, ক্যাসিনো থেকে দিনে ৭০ হাজার টাকা হিসাবে মাসে ২১ লাখ টাকা পাওয়ার তথ্য দিয়েছেন লোকমান।

এর আগে লোকমান হোসেনকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত সোমবার বিকাল ৫টার দিকে কাশিমপুর কারাগার থেকে সেগুনবাগিচায় দুদক প্রধান কার্যালয়ে নেওয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে প্রতিদিন তাকে রমনা থানায় রাখা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ডে নেওয়া হলেও চার দিন জিজ্ঞাসাবাদ করা হলো লোকমানকে। দুদকের আবেদনের পর গত ৩ নভেম্বর লোকমানের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে ঢাকার সিনিয়র বিশেষ জজ আদালত। এর আগে গত ২৭ অক্টোবর অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম। মামলায় ৪ কোটি ৩৪ লাখ ১৯ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। এরপর গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে রাজধানীর মণিপুরিপাড়ার বাসা থেকে গ্রেফতার হন লোকমান। দুদক জানায়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বরখাস্ত হওয়া কাউন্সিলর এ কে এম মমিনুল হক সাঈদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত লোকমান। যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সাঈদ বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন।

সেলিম প্রধানকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রস্তুতি : জ্ঞাতআয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় অনলাইন ক্যাসিনো ব্যবসায়ী সেলিম প্রধানকে সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পাওয়ার পর এখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রস্তুতি নিচ্ছে সংস্থাটি। আগামী রবি অথবা সোমবার তাকে কারাগার থেকে দুদকে আনা হতে পারে বলে দুদক সূত্র নিশ্চিত করেছে। প্রতিদিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতে রমনা থানায় রাখা হবে সেলিম প্রধানকে। এর আগে গত বুধবার দুদক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ ইমরুল কায়েস এ আদেশ দেন। সেলিম প্রধানকে আদালতে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে দুদক। গত ৩০ সেপ্টেম্বর অনলাইন জুয়ার কারবারে জড়িত থাকার অভিযোগে সেলিম প্রধানকে ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

 পরে তাকে নিয়ে গুলশানে অফিস কাম বাসায় অভিযান চালিয়ে বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে সেলিম প্রধানের নামে গুলশান থানায় অর্থ পাচার ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। ওই মামলায় কয়েক দফা সেলিম প্রধানকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে র‌্যাব ও পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। আর অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে গত ২৭ অক্টোবর সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। তার বিরুদ্ধে ১২ কোটি ২৭ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ এনেছে দুদক।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর