শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:২৮

সক্রিয় আওয়ামী লীগ, প্রার্থী পেলেই চাঙ্গা হবে বিএনপি

চলছে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

সাইদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম

সক্রিয় আওয়ামী লীগ, প্রার্থী পেলেই চাঙ্গা হবে বিএনপি

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) নির্বাচন ঘিরে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। দলের মেয়র প্রার্থী ঘোষণার পরই নানামুখী তৎপরতা এবং প্রচার-প্রচারণা শুরু হয়েছে। একইভাবে মেয়র প্রার্থীর পাশাপাশি কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টার, ব্যানারে ছেয়ে গেছে নগরী। অন্যদিকে চট্টগ্রামে বিএনপির মেয়র প্রার্থীসহ কাউন্সিলর প্রার্থীদের দলীয় মনোনয়ন এখনো চূড়ান্ত না করলেও কেন্দ্রীয় ও জেলার শীর্ষস্থানীয় এবং তৃণমূলের নেতাদের মধ্যে আলোচনার শেষ নেই। এখানে কে পাচ্ছেন দলের মেয়র এবং কারা হচ্ছেন কাউন্সিলর প্রার্থী- এসব নিয়ে চলছে গুঞ্জন। এখানে মেয়র পদে প্রার্থী পেলেই বিএনপি চাঙ্গা হয়ে উঠবে বলে তৃণমূল নেতারা জানান। মেয়র পদে ধানের শীষের প্রার্থী হতে পাঁচজন মনোনয়নপত্র কিনেছেন। গতকাল রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে তারা এ ফরম নেন। তাদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হবে ২৪ ফেব্রুয়ারি গুলশানে দলীয় চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে। মনোনয়নপ্রত্যাশী এ পাঁচজন হলেন- চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবু হাশেম বক্কর, সহসভাপতি সৈয়দ আজম উদ্দিন, সাবেক যুগ্মসম্পাদক এরশাদউল্লাহ ও সাবেক কাউন্সিলর নিয়াজ মুহাম্মদ খান। আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে।

কাউন্সিলর পদে ১৩ জন দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনী মাঠে কোমর বেঁধে নেমেছেন আওয়ামী লীগ থেকে পুরুষ ও মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরা। এখানে মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরীকে দলের সভানেত্রী ও মনোনয়ন বোর্ডপ্রধান শেখ হাসিনা মেয়র প্রার্থী ঘোষণার পর ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে দলীয় প্রার্থীকে জয়ী করতে ইতিমধ্যে প্রাক-প্রস্তুতি শুরু করেছেন নেতা-কর্মীরা। এ ছাড়া বর্তমান মেয়র চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন দলের মনোনয়নপত্র না পেলেও দলের মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর পক্ষে এক ও অভিন্ন হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন। তবে গতকাল রেজাউল করিম চৌধুরীর গণসংবর্ধনায় মেয়র নাছির মায়ের অসুস্থতার কারণে যেতে না পারলেও নেতা-কর্মীরা ছিলেন সক্রিয়। সর্বশেষ গতকাল দলের মনোনয়নপত্র নিয়ে চট্টগ্রাম এলে উপস্থিত সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা রেজাউল করিম চৌধুরীকে তার পাশে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ সময় চট্টগ্রামের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। অন্যদিকে নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাবেক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসির ছেলে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা মুজিবুর রহমান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন কমিশন থেকে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এ নিয়েও নেতা-কর্মীদের মধ্যে শুরু হয়েছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। চট্টগ্রাম সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, ‘মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া রেজাউল করিম চৌধুরীকে জয়ী করতে শতভাগ কাজ করব। ইতিমধ্যে আমি নেতা-কর্মীদের সবাইকে বলেছি, তোমরা আমাকে নির্বাচিত করার জন্য যেভাবে কাজ করতে, সেভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রার্থীর জন্য কাজ করবে। আমি শতভাগ উজাড় করে দেব। বিগত দিনে এ শহরের প্রতিটি নির্বাচনে প্রতিটি প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য কী করেছি তা আপনারা জানেন।’ চট্টগ্রাম নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে জানা গেছে, গতকাল নির্বাচন অফিস থেকে মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন সাবেক মন্ত্রী ও নগর আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল ইসলাম বিএসসির ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা মুজিবুর রহমান। এ ছাড়া মেয়র পদে ফরম নেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জান্নাতুল ইসলাম। এখানে সংরক্ষিত মহিলা আসনে দুটি ফরম বিক্রি হয়েছে। যারা কিনেছেন তারা হলেন- স্বতন্ত্র থেকে অশ্রু চৌধুরী এবং বিএনপি থেকে সাহিদা খানম। এ ছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে মোট ৩২ জন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

এর আগে মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন ১৪ জন কাউন্সিলর প্রার্থী। চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কামরুল আলম জানান, সব মিলিয়ে গত দুই দিনে মনোনয়নপত্র নিয়েছেন মেয়র পদে দুজন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে দুজন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৬ জন।


আপনার মন্তব্য