শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৫২

মর্গে মরদেহ থেকে স্বর্ণালঙ্কার চুরি

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

হাসপাতাল মর্গে রাখা সিরাজগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলশিক্ষিকার হাত ও কান থেকে সোনা চুরির ঘটনা ঘটেছে। রবিবার বিকালে হাসপাতাল মর্গে এ ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটে। এমন ঘটনায় শহরজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। তবে পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিন ডোমকে আটকের পর তাদের হেফাজত থেকে সোনা ও চেক উদ্ধারের পর জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। সদর থানার উপ-পরিদর্শক রেজাউল করিম জানান, গত রবিবার দুপুরে শহরের মিরপুর কালাচান মোড়ে বাস-ট্রাকের মাঝে চাপা পড়ে রিকশা আরোহী স্কুলশিক্ষিকা ইফরাত সুলতানা রুনী, তার ছেলে মাশবুবুর রহমান হাদি এবং মেয়ে সোয়াবা রহমান মারা  যান। ঘটনার পর পুলিশ নিহত স্কুলশিক্ষিকা রুনীর লাশ সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। পরে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বরাবর পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফন করার অনুমতি দেওয়া হয়। রাতে স্বজনরা মর্গ থেকে লাশ বাসায় নিয়ে আসেন। কিন্তু নিহত শিক্ষিকা রুনীর হাতে থাকা দুটি সোনার বালা, দুটি নাকফুল, দুটি আংটি এবং একটি চেক পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় নিহত রুনীর ভাই মোর্শেকুস সালেহীন বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে মর্গের ডোম রানা, শাহা আলম ও সুমনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা সোনা ও চেক চুরির বিষয়টি স্বীকার করেন। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার বিকালে মর্গের এক কোনে লুকিয়ে রাখা অবস্থায় সোনা ও চেকটি উদ্ধার করা হয়। এরপর নিহত রুনীর স্বজনদের কাছে তা হস্তান্তর করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফরিদুল ইসলাম জানান, তিনজনের মধ্যে শুধু রানা রাজস্বভুক্ত কর্মচারী। ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর