শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জুলাই, ২০১৯ ২৩:৩৫

ফাইনালের বিতর্ক

আইসিসির ব্যাখ্যা

ফাইনালের বিতর্ক

অল্পের জন্য হয়নি। অবশ্য ভাগ্যও সুপ্রসন্ন ছিল না। টান টান উত্তেজনার ফাইনালে সুপার ওভারে টাই। এরপর বাউন্ডারির অদ্ভুত আইনে চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি নিউজিল্যান্ড। রানার্স আপ হলেও ব্ল্যাক ক্যাপসরা অসাধারণ ক্রিকেট খেলে মন জয় করেছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। উপভোগ্য ফাইনালে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক চলছে এখনো। সেই বিতর্কে জল না ঢাললেও এবার মুখ খুলেছে আইসিসি। ইংল্যান্ড ইনিংসের ৫০ নম্বর ওভারের চতুর্থ বল নিয়ে যত বিতর্ক। ডিপ মিড উইকেট থেকে লম্বা থ্রো করেন মার্টিন গাপটিল। দ্বিতীয় রান নিতে দৌড়াচ্ছেন দুই ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন স্টোকস ও আদিল রশিদ। থ্রো ঝাঁপিয়ে পরা স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি সীমানা পাড় হয়। আম্পায়ার ধর্মসেনা ৬ রানের সিগন্যাল দেন। এ নিয়েই বিতর্ক। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ৬ রানের সিগন্যাল না দিয়ে ৫ রান দেওয়া উচিত ছিল আম্পায়ারের। গাপটিল যখন বল থ্রো করেন, তখন রান নিতে দৌড়ালেও পরস্পরকে ক্রসিং করেননি স্টোকস ও রশিদ। রিপ্লেতেও দেখা গেছে, থ্রোইংয়ের সময় দুই ইংলিশ ক্রিকেটার পরস্পরকে ক্রসিং করেননি। আইসিসির ১৯.৮ ধারার নিয়মে বলা আছে, ওভার থ্রোর পরে বাউন্ডারির ক্ষেত্রে ফিল্ডার বল ছাড়ার মুহূর্তে ব্যাটসম্যানরা পরস্পরকে পার করলে তবেই তাদের দৌড়ে নেওয়া রান যোগ হবে। ফাইনালের তিনদিন পর বিতর্ক নিয়ে আইসিসি ব্যাখ্যা দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আইসিসির এক কর্মকর্তা বলেন, ‘খেলার নিয়মাবলী ও আইনকানুন মাথায় রেখে মাঠের আম্পায়াররা নিজেদের বিচক্ষণতা অনুযায়ী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেন। নীতিগতভাবে আমরা আম্পায়ারদের কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারি না।’

 

 


আপনার মন্তব্য