শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:০৬

জকোভিচের লক্ষ্য নম্বর-৯

‘আমার ওপর কোনো চাপ নেই। সব চাপ জকোভিচের ওপর। কারণ, সে কখনোই রড লেভার এরিনার ফাইনালে উঠে হারেনি।’

ক্রীড়া ডেস্ক

জকোভিচের লক্ষ্য নম্বর-৯

কোয়ার্টার ফাইনালে বিদায় নেন রাফায়েল নাদাল। তখনই টেনিসপ্রেমীরা নিশ্চিত হয়ে যান, ২০২১ সালের প্রথম গ্রান্ডস্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জেতায় নোভাক জকোভিচের বড় কোনো বাধা থাকছে না। তার ওপর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সার্বিয়ান টেনিস তারকার রেকর্ডও সে কথাই বলছে। জকোভিচ ক্যারিয়ারে গ্রান্ডস্ল্যাম জিতেছেন ১৭টি। যার ৮টিই আবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের। রড লেভার এরিনায় ফাইনাল খেলেছেন, কিন্তু হেরেছেন-এমন রেকর্ড নেই সার্বিয়ান তারকার। আজ স্থানীয় সময় সকালে ক্যারিয়ারের ১৮ নম্বর এবং অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের নবম শিরোপা জিততে নামছেন বিশ্বের এক নম্বর নোভাক জকোভিচ। প্রতিপক্ষ ৪ নম্বর বাছাই রাশিয়ার ড্যানিয়েল মেদভেদেভ। রাশিয়ার টেনিস তারকা এবারই প্রথম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে উঠেছেন। ২০১৯ সালের ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠেছিলেন, কিন্তু হেরে যান নাদালের কাছে। ফলে ক্যারিয়ারের প্রথম গ্রান্ডস্ল্যাম জিততে আজ কঠিন পরীক্ষায় নামতে হচ্ছে মেদভেদেভকে।

ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে মেদভেদেভ সেমিফাইনালে দাঁড়াতেই দেননি গ্রিসের সিটসিপাসকে। ২ ঘণ্টা ৯ মিনিটের লড়াইয়ে ৬-৪, ৬-২ ও ৭-৫ গেমে হারান গ্রিক তারকাকে। অথচ সিটসিপাস কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়েছিলেন নাদালকে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে উঠে নিজেকে নির্ভার বলছেন রাশিয়ান তারকা। উল্টো সব চাপ জকোভিচের ওপর বলছেন তিনি, ‘আমার ওপর কোনো চাপ নেই। সব চাপ জকোভিচের ওপর। কারণ, সে কখনোই রড লেভার এরিনার ফাইনালে উঠে হারেনি।’ আজ চ্যাম্পিয়ন হলে ২০০৪ সালের পর প্রথম রাশিয়ান হিসেবে গ্রান্ডস্ল্যামের শিরোপা জিতবেন মেদভেদেভ। তাই ২৫ বছর বয়স্ক তারকার সামনে নতুন ইতিহাস গড়ার হাতছানি। জকোভিচও সেমিতে দাঁড়াতেই দেননি রাশিয়ার আসলান কারাতাসভকে। ৩৩ বছর বয়স্ক সার্বিয়ান তারকা সরাসরি হারিয়েছেন ৬-৩, ৬-৪ ও ৬-২ গেমে। ফাইনালে উঠে উচ্ছ্বসিত জকোভিচ বলেন, ‘আসলানের বিপক্ষে জয়টা সহজ ছিল না। তারপরও আমি বলব ফাইনালে প্রতিপক্ষ যেই হোক না কেন, আমি সেরাটা খেলব।’