Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ মার্চ, ২০১৯ ১৯:৪৭
আপডেট : ২২ মার্চ, ২০১৯ ১৯:৫১

ডাকসুর দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছেন ভিপি নুর

পুনর্নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলন চলবে

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

ডাকসুর দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছেন ভিপি নুর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে জয়ী নেতৃবৃন্দ আগামীকাল শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। এদিকে, ডাকসুর পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনড় থাকলেও আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বগ্রহণ করতে যাচ্ছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্ল্যাটফর্ম ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদে’র প্যানেল থেকে নির্বাচিত সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর ও সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেন।

শুক্রবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংগঠনিক সিদ্ধান্তের পর দায়িত্ব গ্রহণের ঘোষণা দেন নুর। তিনি বলেন, ডাকসু নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আগামীকাল যে অভিষেক অনুষ্ঠান হতে যাচ্ছে, সেখানে শিক্ষার্থীদের চাওয়া-পাওয়াকে প্রাধান্য দিয়ে আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবো। তবে, পুনঃনির্বাচনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য যে সমস্যা রয়েছে সেগুলোর সমাধানকল্পে আমাদের নিয়মতান্ত্রিক যে আন্দোলন-সংগ্রাম সেগুলো চলবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদে’র আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রাশেদ খান, মো. ফারুক হোসেনসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে ডাকসুর দায়িত্ব গ্রহণের বিষয়ে সংগঠনের সম্মতি জানিয়ে বক্তব্য দেন হাসান আল মামুন। তিনি বলেন, দীর্ঘ ২৮ বছর অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনে ভিপি নুরুল হক নুরু এবং সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসাইন সাধারণ শিক্ষার্থীর ম্যান্ডেট নিয়ে জয়ী হয়েছেন। তাই সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার নিয়ে কাজ করতে সংগঠন তাদেরকে দায়িত্ব গ্রহণ করতে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

দায়িত্বগ্রহণের বিষয়ে ডাকসুর নব-নির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, এত প্রতিকূলতা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীরা আমাদের ভোট দিয়েছে, সে ভোটের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে, দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আমরা দায়িত্ব নিচ্ছি।

পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনড় থাকলেও দায়িত্ব গ্রহণের যৌক্তিকতা তুলে ধরে নুর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ধরনের অনিয়মের প্রতিবাদ করার জন্য এবং ডাকসু নির্বাচনে যে অনিয়ম হয়েছে সেই আন্দোলনকে আরও বেগবান করার জন্য আমরা পুনর্নির্বাচন চাই। বিশ্ববিদ্যালয়ের যে সকল জায়গায় কথা বলার আছে, সে সকল জায়গায় কথা বলতেই আমরা দায়িত্ব নিচ্ছি এবং আমাদের পুনর্নির্বাচনের যে চাওয়া সেটিও আমাদের বরাবরের মতই রয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার সকাল ১১টায় ডাকসু ভবনে নির্বাচিত নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান। ওই সভা শেষেই দায়িত্ব নেবেন নব-নির্বাচিত ডাকসু নেতৃবৃন্দ। একই সময়ে হল সংসদের নেতারাও হল প্রাধ্যক্ষ্যের কাছ থেকে দায়িত্ব নেবেন। গত ১৮ মার্চ রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে প্রাধ্যক্ষ কমিটির এক সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

দীর্ঘ ২৮ বছর পর গত ১১ মার্চ ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। অনিয়মের অভিযোগে ভোটগ্রহণের মাঝ পথে এসে ডাকসু নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয় পাঁচটি প্যানেল। প্যানেলগুলো হল ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’, প্রগতিশীল ছাত্রঐক্য, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, স্বতন্ত্র জোটসহ অন্যান্য স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। তবে নির্বাচনের ফলাফলে ডাকসুর মোট ২৫টি পদের মধ্যে ২৩টি পদে সরকার সমর্থক ছাত্রলীগ জিতলেও বর্জনকারী প্যানেল কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্যানেল থেকে নুরুল হক নুর ভিপি পদে এবং আখতার হোসেন সমাজসেবা সম্পাদক পদে জয়ী হন। নির্বাচনে দুটি পদে জিতলেও পুনর্নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে করছে প্যানেলগুলো। এরই প্রেক্ষিতে নুরুল হক নুরু ভিপি হিসেবে দায়িত্ব নিচ্ছেন কি না- এ বিষয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছিল। এর আগে দায়িত্বগ্রহণের বিষয়ে বর্জনকারী পাঁচ প্যানেলের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন নুরুল হক নুরু।  

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য