শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ১৮:০৩

ধর্ষণের অভিযোগে শেকৃবি শিক্ষার্থী আটক

শেকৃবি সংবাদদাতা:

ধর্ষণের অভিযোগে শেকৃবি শিক্ষার্থী আটক

মার্কস মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে বাধন মাতব্বর (২৩) নামে এক ছাত্রকে আটক করেছে শেরেবাংলা নগর থানা পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যে ৭টায় সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক হওয়া ওই ছাত্র শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) এগ্রি বিজনেস ম্যানেজমেন্ট অনুষদের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।

পুলিশ সূত্র জানায়, বাধন ভুক্তভোগী ওই মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করেন এবং ধর্ষণের দৃশ্য মুঠোফোনে ধারণ করেন। পরবর্তীতে সেই ধারণ করা দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে মেয়ের কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ওই মেয়ে বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে শেরেবাংলা নগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জানে আলম মুন্সী বলেন, ‘ভ্ক্তুভোগী ছাত্রী বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করেন। অভিযুক্ত বাধন মাতব্বর মামলা নম্বর ৩০ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০ (সংশোধিত ২০০৩) ধারা ৭/৯ (১), তৎসহ প্যানাল কোড- ৩৮৫/ ৫০৬ মামলার আসামি। আমরা ধর্ষণের অভিযোগে বাধনকে গ্রেফতার করেছি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। পরে তাকে আমরা কোর্টে চালান করে দিয়েছি।’

এ প্রসঙ্গে শেকৃবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘এ বিষয়ে থানা কর্তৃপক্ষ আমাকে অবহিত করেছে। আমি উপাচার্য মহোদয়ের সাথে কথা বলে শৃঙ্খলা কমিটির সভায় বিষয়টি উপস্থাপন করব।’

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর