শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:৩৫

ঢাবির বাসে হামলার প্রতিবাদে ডাকসুর মানববন্ধন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

ঢাবির বাসে হামলার প্রতিবাদে ডাকসুর মানববন্ধন

পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পরিবহনের জন্য ব্যবহৃত বাসে হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসু। হামলার সাথে জড়িতদের দ্রুত সনাক্ত করে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন ডাকসুর নেতৃবৃন্দ। অন্যথায় শাহবাগ ও নীলক্ষেত মোড়ে গণপরিবহন চলাচল অবরুদ্ধ করা হবে বলেও হুমকি দিয়েছেন তারা।  

উল্লেখ্য, বুধবার পরিবহন ধর্মঘটে রাজধানীর সাইনবোর্ড এলাকা ও টঙ্গীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি বাসের গ্লাস ভাঙচুর এবং শিক্ষার্থীদের সাথে খারাপ আচরণ করে শ্রমিকরা। এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদালয়ের রাজু ভাষ্কর্যের সামনে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। 
এতে বক্তব্য রাখেন ডাকসুর (ভিপি) নুরুল হক, ছাত্র পরিবহণ সম্পাদক শামস-ঈ নোমান, সাহিত্য সম্পাদক মাজহারুল কবির শয়ন, সংস্কৃতি সম্পাদক আসিফ তালুকদার, সদস্য তিলোত্তমা শিকদারসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। 
মানববন্ধনে ভিপি নুর বলেন, আন্দোলন মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার। শ্রমিকদের স্বার্থে যদি আঘাত লাগে তারাও আন্দোলন করতে পারে। কিন্তু সেখানে কেন সাধারণ মানুষের মুখে কালি মেখে দিতে হবে?  কেন গাড়িতে কালি মেখে দিতে হবে, ভাংচুর করতে হবে? এটি কোন আন্দোলন নয়। এটি একটি নৈরাজ্য ও উস্কানিমূলক আন্দোলন। 
তিনি বলেন, আন্দোলনের নামে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের বাসে হামলা করেছে। এটি একটি নৈরাজ্য। আমরা পরিবহন সম্পাদককে বলব, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যদি মামলা না করে তিনি যেন ছাত্রদের পক্ষে বাদী হয়ে মামলা করেন। আর যেন এই ঘটনা আর কখনো না ঘটে। আর যেন কেউ এরকম দুঃসাহস না দেখাতে পারে।
পরিবহন সম্পাদক শামস-ঈ-নোমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের উপর হামলা করা মানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যের উপর হামলা। আমরা এই হামলার তীব্র নিন্দা জানাই এবং যারা এই হামলা ঘটিয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।
পরে একটি মিছিল নিয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সাথে তার কার্যালয়ে যান শিক্ষার্থীরা। তাদের কথা শুনে তাৎক্ষণিকভাবে সংশ্লিষ্ট থানাগুলোতে মামলার করতে প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানীকে নির্দেশ দেন উপাচার্য। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য