শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৫:২৫

সিলেটে স্ত্রী হত্যা মামলায় কারাগারে স্বামী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে স্ত্রী হত্যা মামলায় কারাগারে স্বামী

অগ্নিদগ্ধ হয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সিলেট কার্যালয়ের ডাটা অপারেটর লাকি রানী পালের মৃত্যুর ঘটনায় আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন তার স্বামী হিমাদ্রি পাল।

দক্ষিণ সুরমার ধরাধরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিমাদ্রি পাল দুপুরে সিলেটের জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ বজলুর রহমানের আদালতে তিনি আত্মসমর্পণ করেন। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

সিলেটের দক্ষিণ সুরমার সেনগ্রামে স্বামীর বাড়ি থেকে গত ৯ আগস্ট রাতে লাকিকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরের দিন মারা যান তিনি। শ্বশুরবাড়ির লোকজন এ ঘটনাকে রান্না করতে গিয়ে কুপির আগুনে দগ্ধ বলে প্রচার করলেও ১৭ আগস্ট লাকির ছোট বোন প্রিয়াঙ্কা পাল বাদী হয়ে সিলেটের মোগলাবাজার থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় লাকির স্বামী হিমাদ্রি পাল, দেবর হিমেল পাল, শ্বশুর হলধর চন্দ্র পাল ও শাশুড়ি শিখা রানী পালকে আসামি করা হয়। অপরদিকে লাকির শ্বশুরবাড়ির অভিযোগ, দুর্ঘটনাবশত আগুনে মৃত্যুর পর লাকির বোন প্রিয়াঙ্কা পালের দাবি করা ১০ লাখ টাকা না দেওয়ায় একটি দুর্ঘটনাকে পরিকল্পিত হত্যা দাবি করে ষড়যন্ত্রমূলক সাজানো মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

বাদীপক্ষের আইনজীবী জসিম উদ্দিন বলেন, নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করার শর্তে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিলেন হিমাদ্রি পাল। ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশনা ছিল। ২টার দিকে আদালতে হাজির হলে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর