৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ২০:৪৬

ভোট না দেয়ায় 'জুতাপেটা' করার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট:

ভোট না দেয়ায় 'জুতাপেটা' করার অভিযোগ

সিলেটে ভোট না দেয়ায় ৬ ভোটারকে ‘জুতাপেটা’ করার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্য প্রার্থীর বিরুদ্ধে। এ অভিযোগে রবিবার সিলেটের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৮ এ মামলা হয়েছে। মামলাটি করেছেন লাঞ্ছনার শিকার সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার বোয়ালজুড় ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের রহমত আলীর ছেলে মো. ইয়াছিন মিয়া। 

মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে বোয়ালজুড় ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের পরাজিত সদস্য প্রার্থী পশ্চিম সোনাপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের নশর, একই গ্রামের কাঞ্চন বৈদ্য ও সাকির মিয়া। 

মামলায় অভিযোগ করা হয়, গত ১১ নভেম্বর বোয়ালজুড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে প্রার্থী ছিলেন পশ্চিম নশর। নির্বাচনে পরাজিত হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি ও তার সহযোগীরা ১৩ নভেম্বর স্থানীয় কামাল মিয়ার বাড়িতে ভোটার মো. ইয়াছিন মিয়া, আজমল আলী, রাসেল মিয়া, আলমগীর আলই, এনাম উদ্দিন ও আছাদ আলীকে ডেকে নেন। এসময় প্রকাশ্যে তাদের জুতাপেটা করেন ও জুতার মালা গলায় দিয়ে লাঞ্ছিত করেন। এ সময় নশর বলেন- ইয়াসিনরা তাকে ভোট দেননি। তাই তিনি পরাজিত হয়েছেন। 

তবে এমন অভিযোগ মিথ্যা দাবি করেছেন মেম্বার পদপ্রার্থী নশর। তিনি বলেন, ‘আমি মাত্র ২২ ভোটে পরাজিত হয়েছি। নির্বাচিত মেম্বার আমার কারণে বেশ বেকায়দায় পড়েছিলেন। যে কারণে তিনি প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ইয়াছিনকে দিয়ে এমন মিথ্যা অভিযোগ ও মামলা করিয়েছেন।’

১৩ নভেম্বরের বৈঠকের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ওইদিন ইয়াছিনের বিরুদ্ধে ইভটিজিংয়ের দায়ে একটি বিচার-বৈঠক ছিলো। ওই বৈঠকে গ্রামের মুরুব্বিরা তাকে কান ধরিয়ে ওঠবস করিয়েছেন। সেই ঘটনাকে ইয়াছিন আমার বিরুদ্ধে ব্যবহার করে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ বিষয়ে আমিও আইনের দ্বারস্থ হবো।’

বিডি প্রতিদিন/এএম

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর