শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:২৮

‘ধর্ম মানুষে মানুষে প্রেম সহিষ্ণুতা ও শান্তির ডাক দিয়ে যায়’

অনলাইন ডেস্ক

‘ধর্ম মানুষে মানুষে প্রেম সহিষ্ণুতা ও শান্তির ডাক দিয়ে যায়’
শেখ সালাহউদ্দিন আহমেদ

সাউথ এশিয়ান ল’ ইয়ার্স ফোরামের (সাল্ফ) প্রেসিডেন্ট ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শেখ সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ‘ধর্ম মানুষে মানুষে প্রীতি, প্রেম, সহিষ্ণুতা, ঐক্য ও শান্তির ডাক দিয়ে যায়। আমরা আশা করি বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অক্ষুন্ন থাকবে, দূর হয়ে যাবে সব সঙ্কীর্ণতা ও বিভেদ। কারণ এ দেশের ঐতিহ্যই হলো মানুষে মানুষে সম্প্রীতি রক্ষার।’

সোমবার সকালে দুর্গাপূজা উপলক্ষে সাউথ এশিয়ান ল' ইয়ার্স ফোরাম আয়োজিত এক ওয়েবিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ সালাহউদ্দিন বলেন, ‘শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম ইসলাম মানবজাতির পারস্পরিক সামাজিক সুসম্পর্ক বজায় রাখার ওপর অত্যধিক গুরুত্ব আরোপ করেছে। সামাজিক জীব হিসেবে মানবসমাজে বিভিন্ন ধর্মের অনুসারীরা বন্ধুবান্ধব, আত্মীয় স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশী ও গ্রাম-মহল্লার লোকজনের সঙ্গে সমাজবদ্ধ হয়ে মিলেমিশে বসবাস করে। তাই সমাজ জীবনে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান করতে হলে সমাজের সব সম্প্রদায় ও ধর্মাবলম্বী ব্যক্তির সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে হয়। দৈনন্দিন জীবনে আয়-উপার্জন, শিক্ষা, চিকিৎসা ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান প্রভৃতি থেকে শুরু করে মৃত্যুর পর দাফন-কাফন পর্যন্ত প্রতিটি ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতার প্রয়োজন হয়। মানবধর্মই তো মানুষের মনুষ্যত্ব। মানুষকে তার ধর্ম তথা মনুষ্যত্ব থেকে দূর করলে সে অমানুষ হয়ে যায়।’

এই আইনজীবী বলেন, ‘সত্য ও শুভর জয়- এই হচ্ছে সব ধর্মের মর্মকথা। অশুভ অসুর শক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে শুভ দেবশক্তির চূড়ান্ত বিজয়ের দিন হিসেবেই দুর্গাপূজার দশমীর দিনটিকে বলা হয় ‘বিজয়া দশমী’। দূর্গা পূজা ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল শ্রেণির মানুষ নানাভাবে অংশগ্রহণের মাধ্যমে যাবতীয় দুঃখ ভুলে গিয়ে হিংসা-বিদ্বেষের উর্ধ্বে উঠে প্রীতির মেলবন্ধন রচনার মাধ্যমে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে।’

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর