শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ মে, ২০২১ ২২:৪১
আপডেট : ৭ মে, ২০২১ ২৩:৩৫
প্রিন্ট করুন printer

নারায়ণগঞ্জে হেফাজতের সহিংসতায় ছাত্রদল কর্মীর স্বীকারোক্তি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জে হেফাজতের সহিংসতায় ছাত্রদল কর্মীর স্বীকারোক্তি
Google News

হেফাজতে ইসলামের হরতালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় সহিংসতার ঘটনায় অপরাধ স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে এক ছাত্রদল কর্মী। 

বৃহস্পতিবার রাতে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘হেফাজতের ঢাকা হরতালে রূপগঞ্জে যানবাহন ভাঙচুরের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত রাকিব হোসেন (১৯) নামে ছাত্রদল কর্মী নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। রাকিব স্বীকার করে সে নিজে ও স্থানীয় বিএনপি নেতা কাজী তাজসহ তার এলাকার ২৫/৩০ জন লোক ভাঙচুরের ঘটনায় অংশগ্রহণ করে। পুলিশের কাছে সে আরো কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। তার দেওয়া তথ্যাদি যাচাই বাচাই করে সম্পৃক্ত অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে।’

তিনি জানান, ‘গত ২৮ মাচ বিকেল সোয়া ৪টায় রূপগঞ্জের সাওঘাট এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যানবাহন ভাঙচুরের ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে সোহেল রান্না (৪০), সোহেল ভূঁইয়া বাবু (৩৪), মিলন মোল্লা (৩৩) ও রাকিব হোসেনকে (১৯) আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় ভাঙচুর করা একটি ট্রাক জব্দ করে। এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়। পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টাসের নির্দেশে পিবিআই নারায়ণগঞ্জ অধিক তদন্তের জন্য দায়িত্ব গ্রহণ করে। ওই মামলার রাকিব হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে আনা হয়। সে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে অপরাধ স্বীকার করায় আদালতে পাঠানো হয়। 

উল্লেখ্য, গত ২৮ মার্চ হেফাজতের ডাকা হরতালে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড মোড় থেকে শিমরাইল এলাকা পর্যন্ত হরতাল সমর্থনকারীরা ব্যাপক সহিংসতা চালায়।ওই দিন যাত্রীবাহী বাস, ট্রাক, পিকআপ ভ্যান, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস ও অ্যাম্বুলেন্সসহ অন্তত ৫০টি গাড়ি ভাঙচুর হয়। আগুন দেয়া হয় ১৮টি গাড়িতে। এ ঘটনায় পুলিশ ও র‌্যাব ছয়টি মামলা করে। পরে আরও তিনটি মামলা করেন ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির মালিকরা।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর