মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

ডেঙ্গুর প্রকোপ কমবে এক মাসের মধ্যে

নিজস্ব প্রতিবেদক

ডেঙ্গুর প্রকোপ কমবে এক মাসের মধ্যে

আগামী এক মাসের মধ্যে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমে আসবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, দীর্ঘ সময় মানুষ ছুটিতে বাড়িতে থাকায় বাসা-বাড়ি এবং নির্মাণাধীন ভবনে পানি জমে এডিস মশার জন্ম হয়েছে। গত দুই বছরের তুলনায় এবার ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি। এবার ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়ার অন্যতম কারণ জলবায়ু পরিবর্তন। গতকাল সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) আয়োজিত ‘বিএসআরএফ সংলাপে’ এ কথা বলেন মন্ত্রী।

সংগঠনের সভাপতি তপন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

দেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি অনেক ভালো জানিয়ে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, ফিলিপাইনে প্রচুর মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে। তাদের থেকে বাংলাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি অনেক ভালো অবস্থানে রয়েছে। কিন্তু দুঃখজনক যে, এবার ডেঙ্গুতে অনেক শিশু মারা গেছে। অনেকে স্বজন হারিয়েছেন। আমরা আর একজনকেও হারাতে চাই না। এবার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে, এটা পরের সময়গুলোতে কাজে লাগিয়ে পদক্ষেপ নেব। ২০১৯ সাল থেকে মশা নিধনের একটি পরিকল্পিত উদ্যোগ গ্রহণ করি। ওই বছরের অভিজ্ঞতা নিয়ে ২০২০ সালে কাজ করি, সেজন্য আক্রান্ত হয় মাত্র ১ হাজার ৪০৫ জন। কিন্তু, চলতি বছর বেশি আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যাও বেশি।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তাজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা শহরকে সিঙ্গাপুর সিটির মতো করতে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) চূড়ান্ত করা হবে। আমরা এরই মধ্যে ড্যাপের অংশীজনদের মতামত নিয়েছি। এখন পর্যালোচনা চলছে। আশা করছি ডিসেম্বরের মধ্যেই চূড়ান্ত করা যাবে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, বিশ্বের অন্যান্য সুন্দর শহরগুলোর মতো করে ঢাকাকে তৈরি করার সুযোগ নেই। সর্বত্র বহুতল ভবন করে ফেলেছে। ঢাকাতে ২ কোটির বেশি মানুষ আছে। এত মানুষ এখানে রাখা যাবে না। তাহলে কি জোন করে বের করে দেব?  এজন্য গ্রামে আধুনিক সুবিধা বাড়াতে হবে। আর ঢাকার জন্য কিছু নিয়ম তৈরি করতে হবে, এখন যেমন সব নাগরিক সমান হোল্ডিং ট্যাক্স, বিদ্যুৎ বিল, পানির বিল দিচ্ছেন। এখন যদি গুলশানে হোল্ডিং ট্যাক্স যদি বাড়িয়ে দেই, বিদ্যুৎ বিল বাড়িয়ে দেই- তাহলে তিনি গুলশান কিংবা ধানমন্ডিতে না থেকে টঙ্গী চলে যাবেন। তাহলে টঙ্গীতেই তার সুবিধা করে দিতে হবে।

সর্বশেষ খবর