শিরোনাম
প্রকাশ : ৮ আগস্ট, ২০২০ ১৮:১৬

ঢাকায় ফেরার পথে দুলাভাইয়ের ছুরিকাঘাতে গার্মেন্ট কর্মী খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

ঢাকায় ফেরার পথে দুলাভাইয়ের ছুরিকাঘাতে গার্মেন্ট কর্মী খুন

ঈদ শেষে কর্মস্থলে ফেরার পথে দুলাভাইয়ের ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছেন রনি খাতুন নামে এক গার্মেন্ট কর্মী। রংপুরের পীরগঞ্জ থেকে সে বাসের টিকিট কেটে ঢাকায় যেতে চেয়েছিল। শুক্রবার দুপুরে বাসস্টান্ডে তাকে প্রকাশ্যে ধারালো ছুরি দিয়ে খুন করে পালিয়ে যায় দুলাভাই শফিকুল।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আরিজপুর গ্রামের আব্দুস ছাত্তারের মেয়ে রনি খাতুন ঢাকা পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। গত ১০ মাস আগে বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলার নড়িয়া গ্রামের এক ছেলের সাথে বিয়ে হয়। পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সে নিজ বাড়ি পীরগঞ্জে আরিজপুরে বেড়াতে আসেন। কর্মস্থল ঢাকা ফেরার জন্য অটোভ্যান যোগে লালদিঘী হয়ে পীরগঞ্জ বাসস্টান্ডে পৌঁছালে ঘাতক শফি শ্যালিকার সাথে দেখা করার জন্য বাসস্ট্যান্ডে যায় এবং শ্যালিকাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে। এর প্রতিবাদ করলে একপর্যায়ে দুলাভাই শফিকুল ইসলাম শফি শ্যালিকা রনি খাতুনের তলপেটে উপর্যপরি ছুরিকাঘাত করে। এ ঘটনায় তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে পীরগঞ্জ  থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে তার অবস্থার অবনতি হয়। পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। 

এ ঘটনায় শনিবার সুরতহাল শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে ওই গার্মেন্ট কর্মীর। এ ঘটনায় ঘাতক পলাতক রয়েছে। 

উল্লেখ্য, এক সন্তানের জনক শফিকুল ইসলাম শফি শ্যালিকা রনি খাতুনকে বিয়ে করার জন্য তার বড় বোন সাবিনা বেগমকে ডিভোর্স দেয়। কিন্তু শ্যালিকা রনি খাতুনের কোনো পাত্তা না পেয়ে পরবর্তীতে পীরগঞ্জের শানেরহাটে দ্বিতীয় বিয়ে করে। কিন্তু লম্পট শফির কার্যকলাপে অতিষ্ঠ হয়ে দ্বিতীয় বউও বাপের বাড়ি চলে যায়।

পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেষ চন্দ্র জানান, এ ব্যাপারে নিহতের বড় ভাই মনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর