২৯ জুন, ২০২১ ১৯:৫৫

চাঁদপুর রেলওয়ের অবৈধ স্থাপনা ও উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন

চাঁদপুর প্রতিনিধি

চাঁদপুর রেলওয়ের অবৈধ স্থাপনা ও উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন

চাঁদপুর রেলওয়ের অবৈধ স্থাপনা ও উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল চট্টগ্রামের জিএম মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল চট্টগ্রামের মহা-ব্যবস্থাপক (জিএম) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন, চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথের দুই পাশে তালিকাভুক্ত সকল ধরনের অবৈধ স্থাপনা খুব সহসাই উচ্ছেদ করা হবে। এ বিষয়ে আমাদের কাছে সুস্পষ্ট তালিকা রয়েছে। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদকৃত স্থানে রেলওয়ের নতুন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা নির্মাণ করা হবে। সেই সাথে এই অঞ্চলে যেসব রেলওয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে তাদের থাকার জন্য আবাসন ব্যবস্থা করা হবে। খুব শিগগিরই চাঁদপুরের রেলপথটিকে ডাবল লাইন করা হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে চাঁদপুর রেলওয়ের বড় স্টেশনের আশপাশে অবৈধ স্থাপনা ও প্ল্যাট ফর্মের উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। পরিদর্শন শেষে জিএম সবাইকে নিয়ে বড় স্টেশন মোলহেড এলাকায় ৬টি বিভিন্ন ফলদ ও ঔষধি গাছের চারা রোপণ করেন।

চাঁদপুর স্টেশন সংলগ্ন মোলহেড (তিন নদীর মোহনা) এলাকায় পরিকল্পনাধীন উন্নয়ন কাজ সম্পর্কে তিনি বলেন, এখানে আমাদের উন্নয়ন কাজগুলো নিজস্ব প্রকৌশলীর মাধ্যমে সম্ভাব্যতা যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে করা হচ্ছে। আমরা জানতে পেরেছি সেখানে রেললাইন স্থাপন করলে মোলহেডটি টিকবে না। মেঘনা নদীর ভাঙনের মারাত্মক ঝুঁকি রয়েছে। এই কথাটি সঠিক নয়। এখানে অতীতেও রেললাইন ছিল, এখনো থাকবে। রেলওয়ের উন্নয়ন চাঁদপুরবাসীর জন্যই দরকার। আশা করি রেলওয়ের উন্নয়নকাজে চাঁদপুরবাসীর সহযোগিতা, অতীতের ন্যায় আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।

জেলা প্রশাসন কর্তৃক রেলওয়ের সম্পত্তিতে বিনোদন কেন্দ্র ও সড়ক নির্মাণ সম্পর্কে জিএম বলেন, রেলওয়ের সম্পত্তিতে পর্যটন কেন্দ্র করার জন্য অবশ্যই রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করার দরকার ছিল। আমি দেখেছি এখানে রাস্তা ও অবৈধ দোকানপাট করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণরুপে বেআইনি ও অবৈধভাবে করা হয়েছে। তাদের এই কাজটি করা উচিত হয়নি। এখানে বিনোদন কেন্দ্রের প্রস্তাব করা হলে, তা আমরা অবশ্যই করবো। সেই মোতাবেক একটি পরিকল্পনা আমাদের চিন্তায় রয়েছে। চাঁদপুরের জনগণের পক্ষে যদি কারো কোনো নকশা থাকে, তা আমাদের দিতে পারেন। তাহলে উভয় পরিকল্পনার সমন্বয় করে আরো সুন্দর কিছু করা সম্ভব হবে।

পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল চট্টগ্রামের প্রধান প্রকৌশলী সুবক্তগীন, চীফ অপারেটিং সুপারিনটেন্ডেন্ট (সিওপিএস) এএম সালাউদ্দিন, কুমিল্লার সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোরসালিন, এসএসএএই (ওয়ে) লাকসাম মো. লিয়াকত আলী, এসএসএই (পূর্ত) আতিকুর রহমান আকন ও চাঁদপুর স্টেশন মাস্টার (ভারপ্রাপ্ত) মো. শোয়েব শিকদারসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা

পরিদর্শনের শেষ পর্যায়ে রেলওয়ের উন্নয়ন বিষয়ে কথা বলার জন্য মহা-ব্যবস্থাপকের সাথে রেলওয়ে অফিসার্স ক্লাবে সাক্ষাৎ করেন চাঁদপুর জেলা আওয়মী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, চাঁদপুর পৌর সভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েলসহ স্থানীয় কাউন্সিলররা।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর