শিরোনাম
১৯ অক্টোবর, ২০২১ ১৭:০৩

১১টির মধ্যে ১০ ইউনিয়নের তফসিল ঘোষণা, বঞ্চিত ইউনিয়নবাসীর ক্ষোভ

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

১১টির মধ্যে ১০ ইউনিয়নের তফসিল ঘোষণা, বঞ্চিত ইউনিয়নবাসীর ক্ষোভ

নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার একটি ইউনিয়ন বাকি রেখে ১০টির নির্বাচনী তফসিল ঘোষণায় বঞ্চিত ইউনিয়নবাসী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আবেদন করেছে নির্বাচন কমিশনে। কোনো মামলা বা সীমানা জটিলতা না থাকলেও কী কারণে সেটির তফসিল ঘোষণা হয়নি, এ ব্যাপারে স্থানীয় নির্বাচন কমিশনও দিতে পারেনি কোনো সদুত্তর।

জানা গেছে, সারাদেশে বিরাজ করছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের উৎসব মুখর আমেজ। সেখানে নেত্রকোনা জেলাও রয়েছে। ধাপে ধাপে তফসিল ঘোষণা হচ্ছে। প্রার্থী সমর্থকরা উৎফুল্ল হয়ে উৎসব মুখর পরিবেশে মনোনয়ন নেওয়াসহ নির্বাচনী প্রার্থিতা জমা দিচ্ছেন।

এরই ধারবাহিকতায় নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার তফসিল ঘোষণা হয় গত ১৪ অক্টোবর। সেখানে ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ১০টির নাম ঘোষণা করা হয়। বাদ পড়ে যায় একটি। উপজেলার হোগলা, ঘাগড়া, জারিযা, পূর্বধলা, আগিয়া, বিশকাকুনী, খলিশাউড়া, নারন্দিয়া, গোহালান্দা ও বৈরাটি ইউনিয়ন পরিষদের নাম থাকলেও বাদ পড়ে যায় ধলামূলগাঁও ইউনয়নটি।

ফলে সম্ভাব্য তিনটি পদের প্রার্থীসহ ভোটারদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। প্রার্থী সমর্থকদের মাঝে হতাশা তৈরি হয়েছে। উপজেলার সকলেই ভোট দিলেও তাদের ভোটাধিকার হবে না, এটিই তাদের কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কারণে এলাকাবাসী গত ১৭ অক্টোবর গণস্বাক্ষরিত একটি আবেদন জমা দেন উপজেলা নির্বাচন কমিশনে। 

এলাকাবাসীর পক্ষে আতিকুর রহমান জনি স্বাক্ষরিত আবেদনটি গ্রহণ করে কেন্দ্রে পাঠায় উপজেলা অফিস। আবদনে স্বাক্ষরিত আতিকুর রহমান জনি, পূর্বধলা উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মো. রেজোয়ানুর রহমান, মো. জহিরুল ইসলামসহ অন্যরা জানান, আমরা এই ইউনিয়নবাসী অত্যন্ত কষ্ট পেয়েছি। অনেকে গত ৫ বছর ধরে নির্বাচনী আমেজ নিয়ে সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনের জন্য কাজ করে যাচ্ছিলেন।

কিন্তু আমাদের ইউনিয়নের নাম বাদ পড়ায় আমরা কারণ জানতে চাইলে কেউ সদুত্তর দিতে পারেনি। কোনো সমস্যা নেই কোনো জটিলতা নেই, তারপরও কেন হবে না নির্বাচন এই বিষয়ে কথা বললে তারা কিছু বলতে পারেননি। যে কারণে বিষয়টির যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তারা আবেদন করেছেন।

এ ব্যাপারে পূর্বধলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, আমরা একটি আবেদন পেয়েছি। ফরওয়ার্ড দিয়ে পাঠিয়ে দিয়েছি। কী কারণে তফসিল ঘোষণা হয়নি সেটির কারণ উল্লেখ করতে পারেননি তিনি। তবে এর জবাব চাইতে কার্যালয়ে প্রতিদিনই মানুষ আসছে বলেও জানান তিনি।

এটির কোনো আইনি বাধা রয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আইনি কোনো বাধা নেই, আমার জানামতে এই ইউনিয়ন নিয়ে কোনো মামলা মোকদ্দমাও নেই। গত বছর ২০ অক্টোবর ইউপি চেয়ারম্যানের সাধারণ মৃত্যুজনিত কারণে উপ-নির্বাচনে ওমর ফারুক চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। আইনগতভাবে এটিও কোনো বাধা নয়।

বিডি-প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর