৬ জানুয়ারি, ২০২২ ১৪:০১

ভোলায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় বাড়িঘরে হামলা, আহত ৩০

ভোলা প্রতিনিধি:

ভোলায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় বাড়িঘরে হামলা, আহত ৩০

ভোলার পূর্ব ইলিশা ও বাপ্তা ইউনিয়নে আজ সকালে নির্বাচন পরবর্তী মেম্বার প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বাড়িঘরে হামলাসহ অগ্নিসংযোগ করা হয়। এতে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ভোলা সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে।

আজ সকালে বাপ্তা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত পরাজিত মেম্বার প্রার্থী ফারুক হাজিরহাট বাজারে প্রতিপক্ষ বিজয়ী প্রার্থী মাকসুদর রহমান নিরবের উপর হামলা করে। 

স্থানীয়রা জানান, পরাজিত মেম্বার প্রার্থী ফারুক, তার ছেলে আলমাস, ভাতিজা রাবিক, ভাই ফজলে আলমসহ গ্রুপ নিয়ে পূর্ব থেকে হাজিরহাট বাজারে ওঁত পেতে থাকে। সকাল ৯টার দিকে নিরব মেম্বার বাজারে এসে একটি চায়ের দোকানে বসে। এ সময় ফারুক মেম্বার ওই দোকানে নিরব মেম্বারের ওপর হামলা করে। এসময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে মিজান ও হোসেন নামে আরও দুইজন গুরুতর আহত হয়। 

অপরদিকে পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের শিকদার বাড়ির দরজা দিয়ে বিজয়ী মেম্বার প্রার্থী লিটন শিকদারের কর্মী সমর্থকরা মোটরসাইকেল যোগে যাওয়ার সময় পরাজিত প্রার্থী শাহে আলম শিকদারের সমর্থকরা হামলা চালায়। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ব্যাপক সংঘর্ষ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এ সময় বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করা হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

ভোলা মডেল থানার ওসি এনায়েত হোসেন জানান, নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার ঘটনায় পুলিশ খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডি প্রতিদিন/এএম

 

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর