৪ এপ্রিল, ২০২২ ১৬:২৫

হাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে নেপালি শিক্ষার্থীর গায়ে হলুদ

দিনাজপুর প্রতিনিধি

হাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে নেপালি
শিক্ষার্থীর গায়ে হলুদ

দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) ক্যম্পাসের নেপালী বান্ধবীর বিয়েতে যোগ দিতে পারবে না বলে নিজেরাই গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান করে সহপাঠিরা। আবেগঘন মুহূর্তটির আয়োজন করে নেপালী মেয়ে সৃজানার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭তম ব্যাচের কৃষি অনুষদের শিক্ষার্থীরা।

অনুষ্ঠানে আইবুড়ো ভাত, আলতা এবং গায়ে হলুদ দেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের কৃষি বনায়ন রিসার্চ ফিল্ডের পাশে বাংলাদেশের সংস্কৃতিতে তার গায়ে হলুদ আয়োজন করে কৃষি অনুষদের তার সহপাঠি কয়েকজন শিক্ষার্থী।
নেপালী মেয়ে সৃজানার বিয়ে ঈদের ছুটিতে। যেহেতু নেপালে বিয়ে অনুষ্ঠানে সহপাঠিরা যেতে পারবেন না তাই নিজেরাই এই অনুষ্ঠন করেন। 

হাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে শুক্রবার নিজেরাই এ হলুদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করার পর বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্যামেরা বন্দী আনন্দময় মুহূর্ত ছবি আপলোড করলে সর্বত্র জানাজানি হয়।

গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কৃষি অনুষদের সহকারী অধ্যাপক সুব্রত কুমার প্রামাণিক, ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্স অনুষদের সহকারী অধ্যাপক মাসুমা পারভেজসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের নেপালি শিক্ষার্থীরা।

সৃজানার সহপাঠীরা জানায়, নেপালে সাধারণত বাঙালিদের মতো গায়েহলুদ হয় না, তাই সৃজানার খুব ইচ্ছা ছিল আমাদের দেশীয় সংস্কৃতির মতো আমরা যেন ওর গায়ে হলুদের আয়োজন করি। ঈদের ছুটিতে তার বিয়ে। আমাদের পক্ষে নেপালে সৃজানার বাসায় যাওয়া সম্ভব নয়। তাই প্রিয় বান্ধবীর গায়ে হলুদের আয়োজন করি নিজেরাই। নুসরাত নওরীন অর্পা, সুমাইয়া বিন্থি, আফসানা মুবাশ্বেরা সূচনাসহ বন্ধু-বান্ধবীরা মিলে এ আয়োজন করেছি।

নেপালী মেয়ে সৃজানা বলেন, নিজেকে খুবই সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে। আমি কখনোই ভাবিনি বন্ধুরা গায়ে হলুদের আয়োজন করবে। নেপালের সংস্কৃতি এমন নয়। বাংলাদেশে গায়ে হলুদ আমার জীবনে বিশেষ স্মৃতি হয়ে থাকবে।

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর