শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২৩:০১

র‌্যাবের সাঁড়াশি অভিযান

দালাল ও দুর্নীতিবাজদের দমন করুন

Google News

সারা দেশে সরকারি হাসপাতালসহ বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে ২৪৮ দালালকে ৯ লাখ টাকার বেশি অর্থদন্ডে দন্ডিত করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। ৬৮টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের বাইরে জেলা প্রশাসন ও অন্যান্য সংস্থার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের সহায়তা নেওয়া হয়। র‌্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়নের আওতাধীন ৬৯টি সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে রবিবার দালালদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়। আটক ২৪৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। সকাল ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩০ দালালকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-৩-এর একটি দল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় দালালদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ৩০ দালালকে গ্রেফতার করে বিভিন্ন মেয়াদে বিনাশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়। একই দিন ঢাকার কেরানীগঞ্জে বিআরটিএ কার্যালয় ও পাসপোর্ট অফিসের সামনে থেকে দালাল চক্রের ৫২ সদস্যকে আটক করে র‌্যাব-১০। এর মধ্যে ২৯ জনকে সর্বনিম্ন সাত দিন ও সর্বোচ্চ দুই মাস সাজা দেওয়া হয়। ১৩ জনকে ৪৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং মুচলেকা নিয়ে ১০ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। একই দিন চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, জয়পুরহাট, নীলফামারী, সাতক্ষীরা, হবিগঞ্জ, কুমিল্লা, পটুয়াখালীতেও অভিযান চালানো হয়। দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোর সেবা গ্রহণকারীরা চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী এবং তাদের সহযোগী ‘দালাল’ নামের অশুভ চক্রের হাতে জিম্মি। উৎকোচ ছাড়া হাসপাতালে সেবা পাওয়া দুরূহ। সরকারি হাসপাতাল থেকে দালালের মাধ্যমে রোগী ভাগিয়ে নেওয়া হয় বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে, সে ক্ষেত্রেও দালাল ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের একাংশের অশুভ যোগসাজশ কাজ করে। বিআরটিএ ও পাসপোর্ট অফিসে দালাল ছাড়া কোনো সেবা পাওয়া আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়ার মতো অকল্পনীয়। আমরা আশা করব র‌্যাব তাদের প্রতিশ্রুত অভিযান অব্যাহত রাখবে। এসব প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম তাতে পুরোপুরি বন্ধ না হলেও ভোগান্তি সৃষ্টিকারী চক্রের দৌরাত্ম্য কিছুটা যে কমবে সন্দেহ নেই।