Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ১৪:৪৩
আপডেট : ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ১৮:০৭

পারিশ্রমিক নিয়ে সঙ্কট, শুটিং বন্ধ ৫ ধারাবাহিকের

অনলাইন ডেস্ক

পারিশ্রমিক নিয়ে সঙ্কট, শুটিং বন্ধ ৫ ধারাবাহিকের

পশ্চিমবঙ্গে পারিশ্রমিক আদায় নিয়ে ছোট পর্দার শিল্পী ও প্রযোজকদের মধ্যের ঝামেলা কিছুতেই কাটছে না। এবার অভিযোগের তীর প্রযোজক সুব্রত রায়ের দিকে। যার প্রযোজনায় বিভিন্ন চ্যানেলে মোট পাঁচটি ধারাবাহিক চলছে। দীর্ঘ দিন ধরেই অভিযোগ, শিল্পীদের বকেয়া টাকা মেটাচ্ছেন না প্রযোজক। 

শিল্পীরা যথারীতি আর্টিস্ট ফোরামে অভিযোগ জানিয়েছেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে শিল্পীদের কাজ বন্ধ রাখতে বলে আর্টিস্ট ফোরাম। শুক্রবার সুব্রত রায়ের প্রযোজনা সংস্থার কোনও ধারাবাহিকেরই শুটিং হয়নি।

‘করুণাময়ী রানি রাসমণি’, ‘দেবী চৌধুরানী’, ‘সৌদামিনীর সংসার’, ‘তারাপীঠ’, ‘মা মনসা’র প্রযোজক সুব্রত। সূত্রের খবর, শিল্পী, কলাকুশলী মিলিয়ে ১১ কোটি টাকারও বেশি পাওনা প্রযোজকের কাছ থেকে। কিন্তু তিনি দিনের পর দিন সকলকে স্তোকবাক্য দিয়ে যাচ্ছেন। শুক্রবার আর্টিস্ট ফোরাম মিটিং করে। সেখানে ঠিক হয় আগামী ২৬ তারিখের মধ্যে সুব্রতকে টিডিএস-এর টাকা জমা দিতে হবে। তত দিন পর্যন্ত শুটিং বন্ধ থাকবে।

এর ফলে টেলিকাস্ট নিয়ে সমস্যা তৈরি হতে পারে। সুব্রত রায়ের ইউনিট সূত্রে খবর, বেশ কয়েকটি এপিসোড ব্যাঙ্ক করা রয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আগে জানিয়েছিলেন, কোনও পরিস্থিতিতেই শুটিং বন্ধ রাখা যাবে না। এ দিকে আর্টিস্ট ফোরামের বক্তব্য, দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া অবস্থায় তাদের কাছে একটাই পথ।

সম্প্রতি আর্টিস্ট ফোরাম তাদের একটি নিয়মে বদল এনেছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে, মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে শিল্পীদের টাকা দিতে হবে। কিন্তু আর্টিস্ট ফোরামের সিদ্ধান্ত  অনুযায়ী, এখন মাসের ২২ তারিখের মধ্যে টাকা মেটাতে হবে। দিন পিছোনোর নেপথ্যের কারণ নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে। 

সূত্র: আনন্দবাজার

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য