শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ এপ্রিল, ২০২১ ১১:৩৭
প্রিন্ট করুন printer

চাচার কাছেই সংগীত চর্চার শুরু মিতা হকের

অনলাইন ডেস্ক

চাচার কাছেই সংগীত চর্চার শুরু মিতা হকের
ফাইল ছবি

সঙ্গীতে অবদানের জন্য ২০২০ সালে একুশে পদক পেয়েছিলেন দেশবরেণ্য রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী মিতা হক। তার জন্ম ১৯৬২ সালে, ঢাকায়। ছোটবেলায় চাচা লেখক, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ওয়াহিদুল হকের কাছেই সংগীত চর্চা শুরু করেছিলেন তিনি। পরে ওস্তাদ মোহাম্মদ হোসেন খান ও সনজীদা খাতুনের কাছে গান শেখেন।

১৯৭৬ সাল থেকে তবলাবাদক মোহাম্মদ হোসেন খানের কাছে গান শেখা শুরু করেন মিতা হক। বাংলাদেশ বেতারের সর্বোচ্চ গ্রেডের তালিকাভুক্ত শিল্পী ছিলেন। ১৯৯০ সালে বিউটি কর্নার থেকে প্রকাশিত হয় মিতা হকের প্রথম রবীন্দ্রসংগীতের অ্যালবাম ‘আমার মন মানে না’। মিতা হক সব মিলিয়ে প্রায় ২০০টি রবীন্দ্রসংগীতে কণ্ঠ দিয়েছেন। তার এককভাবে মুক্তি পাওয়া মোট ২৪টি অ্যালবাম আছে।

মিতা হক ছায়ানট সঙ্গীত বিদ্যানিকেতনে প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। মিতা হকের মেয়ে জয়িতাও রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী।

প্রসঙ্গত, আজ রবিবার করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় মিতা হকের। 

 

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা