শিরোনাম
প্রকাশ : ১ মে, ২০২১ ১১:৪৭
আপডেট : ১ মে, ২০২১ ১২:০১
প্রিন্ট করুন printer

বিরাট-আনুশকার একে অপরকে ভালো লাগার শুরু যেভাবে

৩৩ বছরে পা আনুশকার

অনলাইন ডেস্ক

৩৩ বছরে পা আনুশকার
বিরাট কোহলি ও আনুশকা শর্মা। ফাইল ছবি
Google News

১ মে, ৩৩ বছরে পা দিলেন বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। ১৯৮৮ সালের এই দিনে ভারতের উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যায় তিনি জন্মেছিলেন। তার বাবা কর্নেল অজয় কুমার শর্মা একজন সেনা কর্মকর্তা এবং তার মা অসিমা শর্মা একজন গৃহিনী। তার কার্নেশ নামে বড় ভাই রয়েছে, যিনি মার্চেন্ট নেভিতে কাজ করেন। 

আনুশকা আর্মি স্কুলে পড়াশোনা করেন এবং বেঙ্গালুরু মাউন্ট কারমেল কলেজথেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন। পরবর্তীতে তিনি মডেলিং ক্যারিয়ার শুরু করার জন্য মুম্বাইয়ে আসেন, যেখানে তিনি বর্তমানে বসবাস করছে।।

তিনি শুধু একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী নন। পাশাপাশি একজন সফল প্রযোজকও। অনুশকার প্রযোজনা সংস্থায় তৈরি হওয়া একাধিক ছবি যেমন মন জয় করে নিয়েছে ছবি সমালোচকদের,পাশাপাশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জন্য তার প্রযোজিত দুটি ওয়েব সিরিজ সাদরে গৃহীত হয়েছে দর্শকদের কাছে। 

তবে জানেন কি স্বামী বিরাট কোহলির সঙ্গে তার প্রথম সাক্ষাতের ঘটনা? যদিও তখন বিরাট ও অনুশকা পরস্পরকে চিনতেন না মোটেই। পিছিয়ে যাওয়া যাক ২০১৩ সালে। তখন ভারতীয় ক্রিকেট টিমের অন্যতম উঠতি তারকা বিরাট কোহলি। সারাবিশ্বে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মধ্যে চর্চার বিষয় হয়ে উঠছেন তিনি। পাশাপাশি ভারতীয় ক্রিকেট দলের সহ-অধিনায়ক হিসেবেও ততদিনে মনোনীত হয়ে যান বিরাট। ওদিকে ততদিনে বলিউডেও নিজের মাটি শক্ত করে ফেলেছেন অনুশকা শর্মা। অসংখ্য পুরুষের ‘হার্টথ্রব’ তিনি। এরকম সময়েই একটি জনপ্রিয় শ্যাম্পু ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন শ্যুটের জন্য ডাক পড়ে বিরাট-অনুশকার। দুজনেই নির্দিষ্ট দিনে সময়মতো হাজির হন শ্যুটিং ফ্লোরে। অনুশকার ক্ষাণিক্ষণআগেই শ্যুটিং সেটে পৌঁছেছিলেন বিরাট। 

এদিক সেদিক ঘুরছেন, এমন সময় ফ্লোরে প্রবেশ করেন ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’-এর নায়িকা। তৎকালীন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সহ-অধিনায়কের চোখে পড়ে দীর্ঘাঙ্গী অনুশকার পায়ে শোভা পাচ্ছে বেশ উঁচু হিলের একজোড়া স্টিলেটো। ফলত, অনুশকার মাথা ছাপিয়ে গেছে বিরাটের উচ্চতা। ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে ‘স্মার্ট’ সাজের চেষ্টায় হাসিমুখেই অনুশকার উদ্দেশে বিরাটের প্রশ্ন ছিল,‘বাড়িতে কি এর থেকে বড় হিলের জুতো ছিল না?’ অপরিচিত সহ-অভিনেতার মুখে এহেন রসিকতা মোটেই মনে ধরেনি অভিনেত্রীর। যথেষ্ট বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন তিনি।

এরপরের ঘটনা শোনা যাক বিরাট-অনুশকার মুখেই। সেই ঘটনা প্রসঙ্গে হাসতে হাসতে অনুশকা বলেন,‘আমি শুনেছিলাম বিরাটের অতিরিক্ত দেমাক। তাই ও কোনোরকমের দেমাক দেখানোর আগেই আমি দেখিয়ে দিয়েছিলাম। এরপর অবশ্য ওর সঙ্গে আলাপ হওয়ার পর বুঝেছিলাম একেবারেই সেরকম নয় বিরাট। আমার এতটাই ভালো লেগেছিল যে, ওই শ্যুট শেষের পর আমার নতুন বাড়ির গৃহপ্রবেশ অনুষ্ঠানেও নিমন্ত্রণ করেছিলাম বিরাটকে। সে এসেওছিল।’ 

অন্যদিকে বিরাট জানান, ‘আমি এমনিই একটু নার্ভাস ছিল সেদিন শ্যুটিংয়ের আগে। তার মধ্যে অনুশকাকে দেখে আমার টেনশন বেড়ে যায় অনেকটাই। তাই চালাকি করতে গিয়ে ওসব বোকা বোকা কাণ্ড করে ফেলেছিলাম। এরপর আলাপ হওয়ার পর ধীরে ধীরে ভালো লাগতে শুরু করে অনুশকাকে।’

এরপর ২০১৭ সালে সাতপাঁকে বাঁধা পড়েন বিরাট-অনুশকা। বর্তমানে একটি কন্যাসন্তান তাদের, নাম ‘ভামিকা।’

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস, উইকিপিডিয়া

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ