শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জুন, ২০১৮ ২৩:২৮

আর্জেন্টাইন শিবিরে শুধুই হতাশা

ক্রীড়া ডেস্ক

আর্জেন্টাইন শিবিরে শুধুই হতাশা

চাপ বেড়েই চলেছে আর্জেন্টিনার ওপর। চাপে নুইয়ে পড়ছেন লিওনেল মেসি। আইসল্যান্ডের সঙ্গে ড্রয়ের পর হেরে যায় ক্রোয়েশিয়ার কাছে। পরের ম্যাচের প্রতিপক্ষ নাইজেরিয়া। প্রথম দুই ম্যাচে ১ পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ার শঙ্কায় ভুগতে শুরু করেছে আলবিসেলেস্তারা। চাপে রয়েছেন মেসিও। দুই ম্যাচে গোলের দেখা পাননি। আবার গোলও করাতে পারেননি। অথচ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো হ্যাটট্রিকসহ ৪ গোল করে সব আলো টেনে নিয়েছেন নিজের দিকে। দুই ম্যাচে কোনো জয় না পাওয়ায় হতাশার চাদরে ঢাকা পড়েছে আর্জেন্টাইন শিবির। ১৯৭৮ ও ’৮৬ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা এবার রাশিয়ায় পা রাখে তৃতীয় শিরোপা জয়ের স্বপ্নে। সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের নেতা হয়ে এসেছেন মেসি; যার অধিনায়কত্বে ২০১৪ সালে ফাইনাল খেলেছিল। তবে জিততে পারেনি। এর আগে ১৯৯০ সালেও ফাইনাল খেলেছিল আর্জেন্টিনা। কাকতালীয় বিষয়, ১৯৯০ ও ২০১৪ সালে দুবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জার্মানি। সেই জার্মানিও এবার বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ার রাস্তায় উঠে এসেছে। এবারের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা সুযোগ করে নেয় একেবারে শেষ সময়ে। মেসির দুরন্ত হ্যাটট্রিকে চিলিকে হারিয়ে জায়গা করে নেয় বিশ্বকাপের চূড়ান্ত আসরে। মেসি, আগুইয়েরো, দিবালাদের নিয়ে আর্জেন্টিনা এবার বিশ্বকাপ জিতবে— এমন স্বপ্ন দেখছিলেন সমর্থকরা। কিন্তু প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার পর বাধাগ্রস্ত হয় সেই স্বপ্ন। সেরা ১৬-তে জায়গা নিতে দলটিকে হারাতেই হতো ক্রোয়েশিয়াকে। উল্টো মেসিরা হেরে যান ৩-০ গোলে। ওই হারেই শঙ্কায় পড়ে যায় সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিশ্বকাপ। অবশ্য এখনো সুযোগ রয়েছে দলটির। এজন্য আশ্রয় নিতে হবে সমীকরণের। যদি আইসল্যান্ড হেরে যায় নাইজেরিয়ার কাছে এবং আর্জেন্টিনা শেষ ম্যাচে আফ্রিকান প্রতিনিধিদের হারিয়ে দেয়, তাহলে চলে যাবে দ্বিতীয় রাউন্ডে। তখন আবার আইসল্যান্ডকেও হারতে হবে ক্রোটদের কাছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর