Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২২ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ জুন, ২০১৯ ২৩:১২

মূলধনী যন্ত্রপাতি আমদানি

অগ্রিম কর প্রত্যাহার করেছে এনবিআর

নিজস্ব প্রতিবেদক

অগ্রিম কর প্রত্যাহার করেছে এনবিআর

মূলধনী যন্ত্রপাতি আমদানির ক্ষেত্রে প্রস্তাবিত বাজেটে আরোপিত অগ্রিম কর প্রত্যাহার করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড- এনবিআর। শর্তসাপেক্ষে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত ৩০০ টাকার স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা দিয়ে অগ্রিম কর পরিশোধ ছাড়া শুধু কাস্টমসের মূলধনী যন্ত্রপাতির প্রজ্ঞাপনে উল্লিখিত যন্ত্রপাতি খালাস করতে পারবেন ব্যবসায়ীরা। অবশ্য শিল্পের কাঁচামালের ক্ষেত্রে এ সুবিধা দেয়নি এনবিআর। সংস্থাটি বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি দিক-নির্দেশনা সারা দেশের কাস্টমস হাউসগুলোতে প্রেরণ করেছে।

এনবিআরের ওই দিক-নির্দেশনায় বলা হয়- গত ১৩ জুন জাতীয় সংসদে অর্থবিল-২০১৯ উপস্থাপিত হয়। অর্থবিলের ৭১ দফা অনুযায়ী অগ্রিম কর আরোপ করা হয়, যা প্রভিশনাল কালেকশন অব ট্যাক্সেস অ্যাক্টের ক্ষমতাবলে কার্যকর হয়। সরকারি প্রতিষ্ঠানসহ কিছু কিছু ক্ষেত্রে অগ্রিম কর পরিশোধের পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ না থাকায় আমদানি পণ্য ছাড়করণে জটিলতা সৃষ্টি হচ্ছে। তাই ক্রান্তিকালীন সময়ে অর্থাৎ ৩০ জুন পর্যন্ত আমদানিকারক ৫ শতাংশ অগ্রিম কর পরিশোধ করবেন মর্মে ৩০০ টাকার স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা দাখিল সাপেক্ষে অগ্রিম কর ছাড়া পণ্য শুল্কায়ন ও খালাসের নির্দেশ দেওয়া হয়। মূলধনী যন্ত্রপাতির আমদানিসংক্রান্ত কাস্টমসের একটি প্রজ্ঞাপন আছে, যাতে কী কী যন্ত্রপাতি আনা যাবে তার এইচএস কোডসহ তালিকা রয়েছে। প্রজ্ঞাপনের আওতায় স্থানীয় উদ্যোক্তারা ৬৫৯ ধরনের যন্ত্রপাতি ১ শতাংশ শুল্ক দিয়ে খালাস নিতে পারবেন, এর বাইরে অন্য কোনো কর দিতে হবে না। এ ছাড়া তুলা, পলিস্টার ইয়ার্ন ও ভিসকস ইয়ার্ন আমদানিতে অগ্রিম কর দিতে হবে না। মূলধনী যন্ত্রপাতি ছাড়াও যে সব পণ্যে অগ্রিম কর দিতে হবে না- ভ্যাট আইনের প্রথম তফসিলের অব্যাহতিপ্রাপ্ত পণ্য, সরকার অনুমোদিত বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আমদানি হওয়া যন্ত্রপাতি, যন্ত্রাংশ ও বিদ্যুৎ সংশ্লিষ্ট উপকরণ, এনবিআরের অনুমোদনের ভিত্তিতে সরকারি প্রকল্পের আওতায় আমদানি হওয়া পণ্য, ডিফেন্স স্টোর হিসেবে আমদানি হওয়া পণ্য, অন্ধ ও বধিরদের জন্য আমদানি পণ্য, ত্রাণসামগ্রী, রাষ্ট্রপতি কর্তৃক আমদানি পণ্য, বন্ড সুবিধায় আনা আমদানি পণ্য এবং সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, জাতিসংঘভুক্ত সংস্থা, দূতাবাস, বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও সংস্থার আমদানি হওয়া পণ্য। প্রসঙ্গত, প্রস্তাবিত বাজেটে অর্থ আইনের মাধ্যমে নতুন ভ্যাট আইনের ৩১ ধারা সংশোধন করে সব ধরনের আমদানি পণ্যের ওপর ৫ শতাংশ হারে অগ্রিম কর আরোপ করা হয়।


আপনার মন্তব্য