শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:০৭

রাজধানীতে অপহরণের দেড় মাস পর উদ্ধার হলো কিশোরী

র‌্যাবের হাতে ধরা দুই আসামি

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর দক্ষিণখান থেকে অপহরণের দেড় মাস পর এক কিশোরীকে (১৩) উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা। গত রবিবার রাতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ এলাকার কালাদী থেকে এই কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় সহযোগীসহ মূল অপহরণকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরা হলো মো. শাকিল ও তার সহযোগী মো. জাকির হোসেন।

র‌্যাব জানিয়েছে, কিশোরীকে অপহরণ করার পর দীর্ঘদিন আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়। গত ১২ সেপ্টেম্বর দক্ষিণখানের আশকোনা আইসক্রিম ফ্যাক্টরির সামনে থেকে এই কিশোরীকে অপহরণ করা হয়। পরে কিশোরীর বাবা দক্ষিণখান থানায় অপহরণ মামলা করেন।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল জানান, গ্রেফতারকৃত শাকিল তার পরিবারসহ দক্ষিণখান এলাকাতেই থাকে। দীর্ঘদিন ধরে সে ভিকটিমকে প্রেম-ভালোবাসাসহ বিভিন্ন ধরনের কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে সে ভিকটিমকে অপহরণের পরিকল্পনা করে। ঘটনার দিন শাকিল ও তার অন্য সহযোগীরা মিলে ভিকটিমকে কৌশলে বাসা থেকে বের করে তুলে নিয়ে যায়। পরে শাকিল তার চাচা মো. আবুল কালামের সহায়তায় ভিকটিমকে নিয়ে পিরোজপুরে যায়। সেখানে মৌলভী ডেকে ভিকটিমকে জোরপূর্বক মৌখিকভাবে বিয়ে করে শাকিল। সে ভিকটিমকে তার সঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর মতো বসবাস করতে বাধ্য করে। এরপর গত ৪ অক্টোবর আবুল কালাম নারায়ণগঞ্জে নিজ বাসার সঙ্গে একটি টিন-শেড রুম ভাড়া করে তাদের সেখানে নিয়ে আসে। ভিকটিমের বাবা-মা তাকে খুঁজে না পেয়ে সন্দেহভাজন হিসেবে শাকিলের বাসায় খোঁজ করলে অপহরণের ঘটনা জানতে পারেন।

বিষয়টি শাকিলের বাবাকে জানালে তিনি কর্ণপাত না করে উল্টো হুমকি দিতে থাকেন এবং তাদের মেয়ে ‘ভালো আছে’ বলে জানান। মেয়ের নিরাপত্তার কথা ভেবে ভিকটিমের বাবা থানায় অভিযোগ না করে স্থানীয়দের মাধ্যমে মীমাংসার চেষ্টা করেন। তাতেও লাভ না হওয়ায় থানায় মামলা করেন। পরে রূপগঞ্জ থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর