শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:৩১

হামলা নাশকতার মামলা

হেফাজতের শীর্ষ চার নেতা গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর পল্টন থানার নাশকতার মামলায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। গ্রেফতার অন্যরা হলেন- মাওলানা ইকবাল হোসেন (৫২), হাফেজ মাওলানা মহিউদ্দিন খান (৫২), হাফেজ মোয়াজ্জেম হোসেন (৫২) ও মাওলানা শাজাহান শিবলী (৪৩)। এদের মধ্যে আজিজুল হক ইসলামাবাদীকে চট্টগ্রামের বালুছড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ সদর দফতর, র‌্যাব এবং ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি যৌথ দল। গত রবিবার রাত ২টার দিকে তাকে আটকের পর ২০১৩ সালের ৫ ও ৬ মে রাজধানীর পল্টন এলাকায় হেফাজতের তান্ডবের মামলায় গ্রেফতার দেখায় পুলিশ। পরে গতকালই ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের মতিঝিল বিভাগের পরিদর্শক কামরুল হাসান তালুকদার আদালতের নির্দেশে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আজিজুল হক ইসলামাবাদীকে সাত দিনের রিমান্ডে নেন। অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জের মদনপুর থেকে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরীর সহসভাপতি মুফতি ইলিয়াস হামিদিকে আটক করা হয়েছে বলে অভিযোগ করলেও এর সপক্ষে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে গতকাল মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক কামরুল হাসান তালুকদার আসামি আজিজুল হককে আদালতে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, ২০১৩ সালের ৫ ও ৬ মে রাজধানীর পল্টন এলাকায় হেফাজতের তান্ডবের ঘটনায় অন্য আসামিদের গ্রেফতার ও তাদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ, নাশকতার কাজে ব্যবহার করা বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার এবং জোগানদাতাদের গ্রেফতারের জন্য এ আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। শুনানি শেষে বিচারক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসামিকে সাত দিন রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। এদিকে রিমান্ড শুনানির সময় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হকের পক্ষে কোনো আইনজীবী আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালের ৫ ও ৬ মে রাজধানীর শাপলা চত্বরে হেফাজতের তান্ডবের ঘটনায় মতিঝিল ও পল্টন থানায় কয়েকটি মামলা হয়। এর মধ্যে এটি পল্টন থানার বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের একটি মামলা।

এদিকে, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন জানান, প্রতিদিন আমাদের অনেক নেতা-কর্মীকেই আটক করছে র‌্যাব-পুলিশ। তাদের অনেককে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দিচ্ছে। তবে অনেককে আটক করে কারাগারে পাঠাচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত আমাদের দুই শতাধিক নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আমাদের সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টে হামলা, ভাঙচুর ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নাশকতা মামলার প্রধান আসামি সোনারগাঁ উপজেলা হেফাজতে ইসলামের সহসভাপতি মাওলানা ইকবাল হোসেন (৫২)-সহ কয়েকজন নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার অন্যরা হলেন- সোনারগাঁ উপজেলা হেফাজতে ইসলামের সভাপতি হাফেজ মাওলানা মহিউদ্দিন খান (৫২), সহসভাপতি হাফেজ মোয়াজ্জেম হোসেন (৫২) ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শাজাহান শিবলী (৪৩)। তাদের রাজধানীর জুরাইন থেকে  গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  মো. জসিম উদ্দিন চৌধুরী।

এই বিভাগের আরও খবর