সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ টা

দিনে শান্ত, রাতে গোলাগুলি

বাংলাদেশ মিয়ানমার সীমান্তে আতঙ্ক কাটছে না

কক্সবাজার প্রতিনিধি

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত দিনের বেলা মোটামুটি শান্ত থাকলেও গত কয়েক দিনের ঘটনা থেকে রাত নামলেই এলাকাজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিশেষ করে নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে সবচেয়ে বেশি আতঙ্কাবস্থা তৈরি হয়েছে। এখানে গত শুক্রবার রাতে সীমান্তের শূন্য রেখায় এসে মিয়ানমারের জঙ্গি বিমান হামলা চালায়। তারপর থেকে প্রতিদিন রাত নামলেই ওপার থেকে গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। তুমব্রু বাজারের ব্যবসায়ী হোসেন ও আবদুল কাদের জানিয়েছেন, প্রতিদিন নতুন নতুন পরিস্থিতি সৃষ্টি করে মিয়ানমার বাংলাদেশ সীমান্তে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার গভীর রাতে রাখাইন প্রদেশের মংডু জেলার উত্তরে বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকার বিপরীতে মিয়ানমারের দুটি যুদ্ধবিমান হতে ভারী অস্ত্রের গোলাবর্ষণ করে। এর একটি বিমান তুমব্রু পয়েন্টের জিরো লাইনের ওপর দিয়ে মিয়ানমারে ফিরে যায়। এ অবস্থায় তুমব্রু বাজার, কোনারপাড়া, মধ্যমপাড়া ও উত্তরপাড়ার বসতিতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সে আতঙ্ক এখনো কাটেনি।

তুমব্রু বাজার সার্বজনীন দুর্গামন্দির কমিটির সভাপতি রূপলা ধর সাংবাদিকদের জানান, মিয়ানমার সীমান্তঘেঁষা তুমব্রুতে আমাদের বসবাস। ওপারের ক্যাম্প থেকে গত শনিবার সকাল ১০টায় একটি মর্টার শেল নিক্ষেপ করা হয়। এ ঘটনায় মিয়ানমারের ভিতরে হতাহত হয়েছে কি না কোনো সঠিক তথ্য জানা যায়নি।

তুমব্রু বাজারের ব্যবসায়ী শফিউল আলম জানিয়েছেন, গত শনিবার ভোর থেকে গতকাল সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দুটি বিস্ফোরণের আওয়াজ মিয়ানমার অভ্যন্তর থেকে ভেসে এসেছে। তবে সীমান্তজুড়ে টহল জোরদার করেছে বিজিবি। তিনি জানান, বিগত প্রায় ৪৩ দিন ধরে চলে আসা মিয়ানমার সেনাবাহিনী এবং সে দেশের বিদ্রোহী সংগঠন আরাকান আর্মির মাঝে চলা সংঘর্ষে তাদের মধ্যে বহু হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে জনশ্রুতি রয়েছে।

সর্বশেষ খবর