শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০০ টা
মন্ত্রিপরিষদ সচিব

মন্ত্রী-উপদেষ্টাদের পদত্যাগপত্র প্রজ্ঞাপন হলেই কার্যকর হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেছেন, মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ও উপদেষ্টাদের পদত্যাগ গ্রহণ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। প্রজ্ঞাপন জারি হলে তাদের পদত্যাগ কার্যকর হবে। পদত্যাগপত্র কার্যকরের আগে তাদের অফিস করতে বাধা নেই।

গতকাল সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এ কথা জানান। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী এবং তিনজন উপদেষ্টা পদত্যাগপত্র দিয়েছেন। পদত্যাগপত্র কার্যকর করার পদ্ধতি আছে, সেই প্রক্রিয়াটা আমরা শুরু করেছি। প্রক্রিয়া সম্পন্নের পরে সেটা কার্যকর হবে। তিনি আরও বলেন, পদত্যাগ করা মন্ত্রীরা হলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম। প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমান; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদবিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্কবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

পদত্যাগ করা তিন উপদেষ্টা ছাড়াও মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিক নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা, সজীব আহমেদ ওয়াজেদ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা এবং সালমান ফজলুর রহমান বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তাদের মধ্যে সালমান ফজলুর রহমান ছাড়া অন্যরা সংসদ সদস্য নন। প্রধানমন্ত্রী উপদেষ্টা হিসেবে সজীব ওয়াজেদ জয়ের নিয়োগ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে দেওয়া হয়েছে জানিয়ে মাহবুব হোসেন বলেন, উনার নিয়োগ পুরোটাই অবৈতনিক। উনি তো কোনো সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করেন না। তাই এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকেই সিদ্ধান্ত আসতে পারে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে যাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া করা হয়েছে, তাদেরটা এখান থেকে প্রক্রিয়া হচ্ছে।

পদত্যাগপত্র জমার পরও অফিস করা বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, যখন থেকে পদত্যাগ কার্যকর হবে, তখন আর অফিস করতে পারবেন না। কবে তাদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ধরা-বাধা কোনো আইন নেই যে, এত দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে হবে। প্রক্রিয়া আছে, অনুমোদন নিতে হবে। পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে গেজেট হবে, পদ যখন খালি হবে তখন শূন্যপদ।

এদিকে, পদত্যাগপত্র গৃহীত না হওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করে যাবেন বলে জানিয়েছেন টেকনোক্র্যাট কোটায় নিয়োগ পাওয়া ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। গতকাল সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। মোস্তাফা জব্বার বলেন, গতবারও প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগের নির্দেশনা দেন। এবারও নির্দেশনা দিয়েছেন। পদত্যাগপত্র গৃহীত না হওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালনে কোনো বাধা নেই। পদত্যাগপত্র যেদিন গৃহীত হবে, সেদিন থেকে আমার কাজ করার কিছু থাকবে না।

 

 

সর্বশেষ খবর