শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

আবারও রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের শঙ্কা

কক্সবাজার প্রতিনিধি

মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘর্ষে ফের বাংলাদেশে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অনুপ্রবেশের জন্য নাফ নদের ওপারে মিয়ানমারে অপেক্ষা করছে শত শত রোহিঙ্গা। তবে রোহিঙ্গাদের সম্ভাব্য অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বিজিবি। গত তিন দিন ধরে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ সীমান্তের নাফ নদের ওপার থেকে থেমে থেমে ভেসে আসছে মুহুর্মুহু গুলির শব্দ। ঘাঁটি রক্ষায় আরাকান আর্মির ওপর জান্তা বাহিনীর বিমান হামলা করতেও দেখেছে স্থানীয়রা। এপার-ওপারের মাঝে বিশাল নাফ নদ থাকায় আতঙ্ক না থাকলেও রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের আশঙ্কা প্রবল হচ্ছে। দক্ষিণ মংডু ও এর আশপাশের এলাকায় এখন রোহিঙ্গা অপেক্ষা করছে অনুপ্রবেশের জন্য। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আদনান চৌধুরী বলেন, অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বিজিবিসহ সংশ্লিষ্টরা তৎপর রয়েছে। সর্বশেষ গত শনিবার বিকালে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপে নাফ নদ পেরিয়ে কাঠের নৌকায় করে পাঁচজন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করে। যেখানে একজন নারী গুলিবিদ্ধ ছিলেন। রাতেই তাদের মিয়ানমারে পাঠিয়ে দেয় বলে জানায় বিজিবি। স্থানীয়রা জানিয়েছে, তাদের কাছে খবর আসছে ওপারে প্রচুর রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের জন্য অপেক্ষায় আছে। জেলেরা বলছেন, গোলাগুলির কারণে তারা আতঙ্কিত। তবে বিজিবির কড়া নিরাপত্তার মুখে রোহিঙ্গারা চেষ্টা করলেও অনুপ্রবেশ করতে পারছে না বলে দাবি তাদের। বাংলাদেশ মিয়ানমার সীমান্তের উত্তর দিক থেকে দখল করে করে এখন দক্ষিণ দিকে অগ্রসর হচ্ছে আরাকান আর্মি। ফলে এখন সংঘর্ষের প্রভাব চলে গেছে ঘুমধুম তুমব্রু সীমান্ত থেকে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ সীমান্তে। এখন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকানোই বড় চ্যালেঞ্জ মনে করছেন স্থানীয়রা।

 

সর্বশেষ খবর