Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ আগস্ট, ২০১৯ ২২:১২

ফুলের ছোঁয়ায় রূপের জাদু

ফুলের ছোঁয়ায় রূপের জাদু
ছবি : শোভন মেকওভার

শুধু সৌন্দর্যের প্রতীক নয়, রূপ বাড়াতে ফুল জাদুর কাঠিও বটে। ফুলের ছোঁয়ায় ত্বকও হয় মোহনীয়। তাই আপনিও জেনে নিন ফুলের ছোঁয়ায় রূপ বাড়ানোর জাদুবিদ্যা।

 

গোলাপ ফুল

গোলাপকে বলা হয় ফুলের রানী। ভালোবাসা নিবেদনের প্রথম বাছাইও হয় একটি গোলাপ। ফুলটিকে দেখে যেমন মন জুড়িয়ে যায় তেমনি তার গুণ দিয়েও আমাদের করে তোলে লাবণ্যময়ী ও রূপসী। শুষ্ক ত্বকের যে কোনো বয়সী নারী গোলাপের প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। গোলাপের পাপড়ির সুগার আর তেল শুষ্ক ত্বকে আর্দ্রতা জুগিয়ে ত্বককে কুসুম কোমল করে  তোলে। গোলাপে থাকা অ্যান্টি-ইরিট্যান্ট বৈশিষ্ট্য ত্বকের জ্বালাপোড়া কমিয়ে দেয়, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট প্রপার্টি ত্বকের নতুন কোষ সৃষ্টিতে সাহায্য করে। এখন ভাবতে পারেন ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে গোলাপ ফুল কীভাবে ব্যবহার করা যাবে?

খুব সহজ, একটি বাটিতে কয়েকটি গোলাপ ফুলের পাপড়ি, ২/৩ চা চামচ ওটস আর দুধ ভালো করে ব্লে­ন্ড করে নিন। হয়ে গেল আপনার প্যাক। এবার একটি কটন বলে গোলাপ জল লাগিয়ে পুরো মুখ মুছে নিন। তারপর অপেক্ষা করতে হবে সেটি শুকানো পর্যন্ত। এখন লাগান গোলাপের ফেস প্যাক। ১০-১৫ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক নিয়মিত ব্যবহারে আপনি পেয়ে যাবেন কাক্সিক্ষত উজ্জ্বল ত্বক।

 

বেলি ফুল

বেলি ফুলের গন্ধে মাতাল না হয়ে উপায় থাকে না কারও। এর মোহনীয় গন্ধে মন হারিয়ে যায় রূপকথার দেশে। বেলির মাতাল করা গন্ধে ছোট বড় সবাই বিমোহিত হয়। শুষ্ক ত্বকের জন্য প্যাকটি খুবই উপকারী। সপ্তাহে মাত্র ২ বার ব্যবহার করে কাক্সিক্ষত ফল পাওয়া সম্ভব। মাত্র এক সপ্তাহেই দেখবেন ড্রাইনেস অনেকটাই কেটে গেছে। এই ফুল দিয়ে প্যাক তৈরি করতে প্রথমে ফুলের বোঁটা থেকে পাপড়িগুলো আলাদা করুন। তারপর ২০০ মিলি ফুটন্ত পানিতে  ছেড়ে ৩-৫ মিনিট রাখুন। এবার পানি ঠান্ডা হয়ে এলে ছেঁকে নিয়ে দুধের মালাই এর সঙ্গে পেস্ট করে নিন। মসৃণ ত্বক পাওয়ার জন্য প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন। তারপর হালকা ম্যাসাজ করে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নিন। যাদের সেনসিটিভ ত্বক তারা টক দইয়ের সঙ্গে ব্লে­ন্ড করে মুখে লাগান। শুষ্ক ত্বকে সপ্তাহে ১ বার করাই যথেষ্ট।

 

জবা ফুল

জবা ফুলের রূপে মুগ্ধ হন সবাই। অনেক কবিতার লাইনেও জবা ঠাঁই করে নিয়েছে তার রূপ দিয়ে। তবে রূপচর্চায় এই ফুলের ব্যবহার অনেক আগেকার। বিশেষ করে চুলের সৌন্দর্য চর্চায় জবা ফুলের ব্যবহার অনেক পুরনো। সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে তার গুণকীর্তন আছে অনেক। কিন্তু আজ জেনে  নেব, চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধিকারী এই ফুলটি ত্বকচর্চায় কতটা পারদর্শী সে সম্পর্কে। প্রায় অনেকেই ব্রণের সমস্যায় অতিষ্ঠ থাকি। ঘন ঘন ক্রিম ব্যবহারের ফলে ত্বকের লোমকূপ বন্ধ হয়ে যায় আর ধুলাবালির উপদ্রব তো আছেই। এসব থেকে রেহাই পেতে কিছু জবা ফুলের পাপড়ির পেস্ট করে এর সঙ্গে চালের গুঁড়া, এসেনসিয়াল অয়েল যেমন ভিটামিন ই আর অল্প পানি দিয়ে একটি প্যাক বানিয়ে নিন। এবার প্যাকটি মুখে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন ১৫ মিনিট। তারপর দুই মিনিট ম্যাসাজ করে ধুয়ে নিন।

 

গোলাপ বেলির পেস্ট

অনেক সময় সাধারণ বা মিশ্র ত্বক হঠাৎ করে শুষ্ক হয়ে ওঠে। সেসব ত্বকের জন্য গোলাপ বেলির প্যাকটি বিশেষভাবে উপযোগী। গোলাপ বেলির মিশ্রণ ত্বকের অ্যাসিডিক নেচার অনেকখানি কমিয়ে দেয়। এক মুঠো গোলাপের পাপড়ি আর এক মুঠো  বেলি ফুল নিন, এর সঙ্গে কাঁচা দুধ মিশিয়ে হাত দিয়ে কচলে নিন। এবার প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি  দেওয়ার পর হাতের তালুতে একটু গোলাপ জল নিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। এভাবে সপ্তাহে ৩ দিন করে ১ মাস করুন।

ফুলগুলোর ভিতরের প্রাকৃতিক উপাদান রূপচর্চার জন্য আশীর্বাদস্বরূপ। তাই আজই ঘরোয়া পাথেয় হিসেবে ব্যবহার করুন।

লেখা : ফ্রাইডে ডেস্ক


আপনার মন্তব্য