প্রকাশ : শুক্রবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ অক্টোবর, ২০১৯ ২১:৩০

ফ্লোর প্ল্যানিং

কিচেন রুমে যে টাইলস চলবে, লিভিং রুমে সেটা অচল। তাহলে ফ্লোর প্ল্যানিং কেমন হবে সে সম্পর্কে জানব এই ফিচারে।

ফ্লোর প্ল্যানিং

ফ্ল্যাটে ঢুকতেই সবার আগে নজর কাড়বে  ফ্লোর (মেঝে)। তাই আপনার ফ্ল্যাটের সাজে পূর্ণতা আনতে প্রয়োজন টাইলসের শৈল্পিক ব্যবহার। এখন ফ্লোর টাইলস খুবই চলছে। খুব সহজে ফিটিংও করে নেওয়া যায়। ইচ্ছে হলে পুরনো মেঝে না উঠিয়েও সলিউশন দিয়ে টাইলস লাগিয়ে ফেলা যায়।

 

ডাইনিং রুম : বাসায় পা দিয়েই যে রুমে অতিথির আগমন ঘটে তা হলো ডাইনিং রুম। তাই এই রুমের ফ্লোর বা মেঝের ডিজাইনও সেক্ষেত্রে হতে হবে একটু বিশেষ ধরনের। বসার ঘরের মেঝের টাইলস হতে হবে চকচকে ঝকঝকে। সেক্ষেত্রে মেঝে সাজানোর জন্য নানান ধরনের মিরর পলিশ টাইলস, ডেকোরেটিভ টাইলস ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন। ডেকোরেটিভ টাইলসগুলো সুন্দর ডিজাইন এবং কালারের হয়ে থাকে। তবে এক্ষেত্রে টাইলস প্লে­টের আকার বড় হওয়া প্রয়োজন। এতে করে জোড়ার সংখ্যা কমে যায়, ফলে মেঝে দেখতে বড়সড় মনে হয়। তবে ফ্লোরের টাইলসের রং একটু হালকা রঙের হওয়াই ভালো।

 

লিভিং রুম : এই রুমের দেয়ালের রং যদি গাঢ় হয়, তাহলে টাইলস হবে দেয়ালের রঙের সবচেয়ে হালকা শেডটি। অর্থাৎ দেয়াল যদি গাঢ় নীল রঙের হয় তাহলে ফ্লোর বা মেঝের রং হবে উজ্জ্বল আকাশি। শোবার ঘরের দেয়ালে টাইলস ব্যবহার না করাই ভালো। তবে একান্তই ব্যবহার করতে চাইলে হালকা রঙের ম্যাট টাইলস ব্যবহার করাই উত্তম। সেক্ষেত্রে গ্ল­সি টাইলসের বদলে হালকা ধরনের টাইলস ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আলোর প্রতিফলন কমে যাবে। তবে লিভিং রুম বেশি বড় হলে গ্ল­সি টাইলস ব্যবহার করা যেতে পারে।

 

ডাইনিং রুম : ড্রইং রুমের মতোই ডাইনিং রুমের টাইলসও গ্লসি এবং ডেকোরেটিভ হলে ভালো হয়। ডাইনিং রুম বা খাবার ঘরে সবচেয়ে বেশি মানায় মিরর পলিশ টাইলস এবং পোরসিলিন টাইলস। এই রুমের ফ্লোরের টাইলস একটু হালকা ধরনের হলেও দেয়ালে ব্যবহারের টাইলস গাঢ় করা যেতে পারে। ডাইনিং রুমে আয়তন খুব বেশি হলে গাঢ় রঙের টাইলসই বেশি মানানসই। তবে, আয়তন ছোট হলে এক পাশের দেয়ালে গাঢ় রঙের টাইলস এবং অন্য তিন পাশে হালকা বা মাঝারি রঙের টাইলস ব্যবহার করলে ঘরের আয়তন দেখতে বেশি মনে হয়।

 

কিচেনরুম এবং বাথরুম : কিচেনরুম এবং বাথরুমের টাইলসের ব্যবহার একেবারেই ভিন্ন। অন্য স্থানগুলোতে টাইলসের ব্যবহার শৌখিনতা হলেই রান্নাঘরে এটি প্রায় অপরিহার্য। রান্নাঘর ও বাথরুমে পানির ব্যবহার বেশি হয়, তাই টাইলস ব্যবহারের আগে এটি সবসময়ই মাথায় রাখতে হবে যে রান্নাঘর এবং বাথরুমে ব্যবহৃত টাইলসগুলো পিচ্ছিল কিনা। এক্ষেত্রে গ্ল­সি টাইলসের বদলে ম্যাট টাইলস ব্যবহার করাই উত্তম। ম্যাট টাইলসগুলো সাধারণত খসখসে হয়ে থাকে। ফলে পিছলে পড়ার আশঙ্কা কমে যায়। বাথরুমে যদি পানির ব্যবহার কম হয় মানে বাথরুম শুকনো থাকে তবে টাইলস লাগানোতে কোনো অসুবিধে নেই। খেয়াল রাখতে হবে যে, রান্নাঘরে পানির পাশাপাশি তেল-চর্বিও জমে থাকে। ম্যাট টাইলসগুলো থেকে তেল-চর্বি তোলা বেশ কষ্টকর। তাই যে স্থানগুলোতে তেল-চর্বি বেশি জমে, সেখানকার টাইলস একটু গ্লসি হলেই ভালো।

 

লেখা : মোহাম্মদ সুজন


আপনার মন্তব্য